পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৫২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মধ্যে গিয়া গগন বিদীণ করিয়া বলিল, “ওগো, তোমাদের জামাইৰাৰ এসেছেন।” ভুতাটির মায় স্নামশৱণ। সে এই ৰথা শুনিয়া, দস্ত বিকশিত করিয়া বলিল, “আৱে! জামাইৰাব ?”—বলিয়া সে চটপট হাত ধইয়া ফেলিয়া, নলিনীকে একটি দীর্ঘ সেলায় কম্মিল । তাহার পর রামশরণ জিনিসপত্র গাড়ী হইতে নামাইরা ফেলিল। এদিকে বাড়ীর ভিতর হইতে নানা আকারের বালকবালিকাগণ আসিয়া উকি মারিয়া জামাই দেখিতে লাগিল । রামশরণ নলিনীবাবকে বৈঠকখানার ঘরে লইয়া গিয়া বসাইল। বলিল, “বাব চান করা হোবে কি ?” নলিনী বলিল, “হ্যাঁ—স্নান করব। তুমি গোসলখানায় জল দাও।” এই সময় একজন বাঙ্গালী ঝি আসিয়া নলিনীকে প্রণাম করিয়া বলিল “ভাল ছিলেন ত ?” "হ্যাঁ ভাল ছিলাম। তোমরা কেমন ছিলে ?” হাসিয়া ঝি বলিল, “যেমন রেখেছেন। আজ ছমাস আমি এ বাড়ীতে চাকরী করছি, দিদিমণিকে রোজ জিজ্ঞাসা করি, জামাইবাব কষে আসবেন গো —জামাইবাব কবে আসবেন গো ?--দিদিমণি বলেন, এই ছটি হলেই জাসবেন। তা এতদিনে মনে পড়ল সেও ভাল। আপনি চান করে ফেলন। মা ঠাকরণে জিজ্ঞাসা করলেন, এখন কি জলটল খাবেন, না ভাত চড়িয়ে দেওয়া হবে ?" নলিনী মোগলসরাই স্টেশনে, কেলনারের কল্যাণে, প্রাতরাশ সমাধা করিয়া আসিয়াছিলেন; বলিলেন, “এখন ভাত চড়তে হবে না-জলটল খাব এখন।" - ঝি বলিল, “আচ্ছা তবে সনান করে ফেলন। পয়ে আপনাকে একটি নতুন জিনিস দেখাব। আমার বখশিসের জনো কি গহনা টহনা এনেছেন বের করে রাখনে।”—বলিয়া ৰুি নলিনীর প্রতি রমণীজন-সলভ কটাক্ষপাত করিয়া, মদ হাস্য করিল। রামশরণ বলিল, “তুই বখশিস লিবি, হামি বুঝি বখশিস লেব না ?” ইহার অর্থ কিছুই বুঝিতে পারিল না, কেবল গম্ভীরভাবে বাডটি নাডিতে সনানান্তে ফিরিয়া আসিয়া নলিনী দেখিল, কতকগুলি বালকবালিকা তাহার বন্দকের বাক্স খালিয়া বন্দকটি বাহির করিয়াছে। সকলে মিলিয়া তাহার ভিন্ন ভিন্ন অংশগলি ষোড়া দিবার চেষ্টা করিতেছে। তাহাদের হাত হইতে বন্দকটি লইয়া নলিনী সাবধানে সথানান্তরে রাখিয়া দিল । এমন সময় পর্বেকথিত ৰি আসিয়া প্রবেশ কাঁৱল। তাহার কোলে একটি অল্পবয়স্ক শিশ । তাহার মুখখানি সদ্য পরিস্কৃত, চক্ষয়গল এই মাত্র কজলিত, মাথার চলগলি সাবধানে অচিড়াইয়া দেওয়া। x - fৰু শিশুটিকে হাতে ৰরিয়া তুলিয়া নড়াইয়া বলিল, “দেখ জামাইকব দেখ, কেমন সোণার চাঁদ হয়েছে। যেন রাজপত্তেরটি। নাও—একবার কোলে কর।” নলিনী কখনই ছোট শিশ পছন্দ কাঁৱত না। তখাপি ভদ্রতার খাতিরে বলিল, “বাঃ —বেশ ছেলেটি ত!”—ৰলিয়া কোলে লইল । কি বলিল, “বেশ ছেলেটি বললেই হয় না, এখন কি দিয়ে মুখ দেখবে দেখ।” নলিনী পকেট হইতে দুইটি টাকা বাহির করিয়া শিশৱ কথমটির মধ্যে প্রবেশ করাইয়া দিল। - কলিকাতার ঝি তদশনে গালে হাত দিয়া বলিল, “ওম্য ওমা ওকি ন নোকে কলৰে কি গো ? রপো দিয়ে সোণার চাঁদের মুখ দেখা!” সমবেত বালকবালিকাগণ খিলখিল কৰিয়া হাস্য করিয়া উঠিল । অভ্যন্ত অপ্রীতজ্ঞ BBBS BB BBBB BBD BBB BB BBS BBB DDS HBB BB BBBS BB ९४8 - - -