পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৫২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


“না, শরৎ হবে কেন ?” “কে তবে ?” “আমি জানি ?” “এ কি কাণ্ড ? জয়াচোর নাকি ?” "যে রকম চোয়াড়ে চেহারা, আশ্চৰ্য্য নয়।” "ওমা এ কি কাণ্ড ! জামাই সেজে কে এল ?” একজন বালকের কন্ঠস্বরে শনা গেল, “একটা বন্দক নিয়ে এসেছে।” “আ—িওমা কি সববনাশ হল গো! ওরে রামশরণা—রামশরণা—কোথা গেলি ? যা, শীগগির বাবকে খবর দে।”—রমণীগণের দ্রুত পদধবনি শ্রত হইল। তাহার পর নলিনী আর কিছু শনিতে পাইল না। এই সময়ের মধ্যে, আদরেস্থিত একটি পস্তকের আলমারির প্রতি নলিনীর দটি পড়িয়ছিল। সারি সারি বাঁধান ল-রিপোর্ট; প্রত্যেকখানির নিলেন সোণা জলে নাম লেখা—এম• এন- ঘোষ । তখন সমসত ব্যাপার নলিনী দিনের আলোকের মত সপটি বঝিতে পারিল। তাহার শবশরের নাম মহেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়। ইনি মহেন্দ্রনাথ ঘোষ। তবে ভ্রমক্ৰমে সে অন্য লোকের শ্বশুরবাড়ীতে চড়াও করিয়াছে। নলিনী তখন মনে মনে হাস্য করিতে করিতে নিশিচন্তমনে একে একে জলখাবারের পারগুলি খালি করিয়া ফেলিল। ll 8 || এদিকে রামশরণ ভৃত্য উদ্ধর বাসে বাবকে খবর দিতে ছটিল। কেদারবাব উকীলের বাসায়, ছটির সময়, প্রায়ই পাশা খেলার আড়া জমিয়া থাকে। অদ্য এখানে বড় মহেন্দুবাব, ছোট মহেন্দ্ৰবাব (নলিনীর আসল বশর) এবং অন্যান্য অনেকগুলি উকীল সমবেত | পাশা খেলা চলিতেছিল, এমন সময় ঝড়ের মত আসিয়া রামশরণ সেখানে প্রবেশ করল। নিজ প্রভুকে দেখিয়া বলিল, “বাবা-বাবা-জলদি বাড়ী আসন—” তাহার মুখ চক্ষ দেখিয়া ভীত হইয়া মহেন্দ্র ঘোষ বলিলেন, “কেন রে—কার অসুখ বিসুখ وهي “বাড়ীমে একঠো ডাকু এসেছে।” সকলেই উৎসকে হইয়া উঠিলেন। মহেন্দ্র ঘোষ বললেন, “ডাকু ? দিনের বেলায় ডাকু ?” - রামশরণ বলিল, “ডাকু হোবে কি জয়াচোর হোবে কি পাগল আদমি হোবে কিছর ঠিকানা নাই। সে বলে কি হামি বাবর দামাদ আছি।” ইহা শুনিয়া অন্য সকলে হাস্য করিলেন। কিন্তু মহেন্দ্র ঘোষ উত্তেজিতস্বরে জিজ্ঞান করিলেন, "কখন এল ? কি করছে ?” "এই তিন বাজে এসেছে। একঠো লাঠি এনেছে, একঠো বন্দকে এনেছে—অন্দরমে গিয়ে জল উল খেয়েছে। মাইজি লোগকো বড়া ডর হয়েছে।" “বন্দকে এনেছে ? লাঠি এনেছে ?—হতভাগা পাজি শয়ার-তুই বাড়ী ছেড়ে এলি কার জিমায় ?" বলিয়া ক্ষিপ্তের মত মহেন্দুবাব বাহির হইলেন। গাড়ী প্রস্তুত ছিল। লম্ফ দিয়া গাড়ীতে উঠিয়া হাঁকলেন, “জোরসে হাঁকাও ।" । কয়েকজন উকীল সঙ্গে সঙ্গে বাহিরে আসিয়াছিলেন। কেহ বলিলেন—“বোধ হয় পাগল হবে।” কেহ বলিলেন—“না,পাগল হলে বন্দকে আনবে কেন ? কোনও বদমায়েস গণ্ডা হবে।” ছোট মহেন্দুবাব নেলিনীর শ্বশর) বলিয়া দিলেন, “পাগলই হোঝ, গণ্ডাই হোক, ধরে পলিসে ཐ་ར་ཝ་པཱ་༔ སྨྱུ་ দিও।”