পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৫৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাবটি ওঠযগল কুঞ্চিত করিয়া, সন্দিগ্ধভাবে মাথাটি নাড়িতে লাগিলেন। বলিলেন, “কিছু বোঝা গেল না। আজকাল ছাপার বই হয়েছে, চার পয়সা দিয়ে একখানা কিনে গায়ত্রী, সন্ধ্যা মুখস্থ করে নিলেই হল।” একটা দুঃখের ভাণ করিয়া বলিলাম, “কত্তা যদি বিশ্বাস না করেন তা হলে কি করি ?” বাবটির মুখে একটা উৎসাহের চিহ্ন দেখা গেল। সহসা বলিলেন, “আচ্ছা, পৈতে গ্রন্থি দেয় কি মন্ত্র বলে, বল গিকিন? এটা আর কোন ছাপার কেতবে নেই।” আমি গভীরভাবে বলিলাম—“ভরদ্বাজ-আঙ্গিরস-বাহপতা-প্রবরস্য।” শনিয়া বাবটি বলিলেন, “তবে ঠিক বামনেই বটে। কত মাইনে নেবে ?” “আজ্ঞে, কত্তার কি হুকুম হয় ?” “তুমিই ঘল না।” “কলকেতার রেট তো বাঁধা আছে।” “কত ?” - আমাদের বাসার বামনের মাহিনী পাঁচ টাকা আর খোরাক পোষাক ছিল। তাই “পাঁচ টাকা না পাঁচশ টাকা ! কে বললে তোমায় কলকেতার রেট পাঁচ টাকা ?” “আজ্ঞে, অনেক ছাত্রদের মেসের বাসায় ত বামনের মাইনে পাঁচ টাকা আর খোরাক পোষাক আছে।” “মেসের বাসা আর গেরুতর বাড়ী সমান ? ছাত্রদের মেসের বাসার চাকরি, আজ আছে কাল নেই। যদি চার টাকায় রাজি হও ত বল। চার টাকা, খোরাক, আর বছরে দখোনা কাপড় দখানা গামছা।” আমি মাথা চলকাইতে চলেকাইতে বলিলাম, “আজ্ঞে চার টাকায় কি করে চলবে ? বহর পরিবার, তাদের খাওয়াব কি ?” “বহা পরিবার ? ক’জন খানেওয়ালা ?” “আজ্ঞে বড়ো মা বাপ, ভাই—” বাধা দিয়া বাবটি বলিলেন, “ঈশ্য। রাঁধ নিগিরি করে বড়ো মা বাপ ভাইকে খাওয়াবেন! আমার একশো টাকা মাইনে, আমিই পারিনে!—নিজের স্ত্রীসন্তানকে খাওয়াতেই সব টাকা খরচ হয়ে যায়। চার টাকা থেকে এক টাকা জমাবে,—তিন টাকা মাসে মাসে তোমার সন্ত্রীকে পাঠিয়ে দিও এখন " “কি, কুলীন বামন এখনও বিবাহ করনি ?” “না - > - “কেন ? কোনও দোষ-টোষ আছে নাকি ?” “দোষ—দারিদ্র্যদোষ। এত গরীবকে কে মেয়ে দেবে ?” “বিয়ে করনি ভালই করেছ। সাহেবেরা নিজে বিলক্ষণ উপাত্তজন করতে না পারলে বিবাহ করে না। যদি ইংরাজি জানতে, ওদের কেতবেই দেখতে পেতে। আমাদের আপিসের ছোট সাহেব, পাঁচশো টাকা মাইনে পায়, এখনও বিবাহ করেনি।" আমি চারি টাকা পথ্যনে পাঁচ টাকা করিবার জন্য অনেক পীড়াপীড়ি করিতে লাগিলাম । অবশেষে সাড়ে চারি টাকায় রফা হইল। বাবটি বলিলেন—যদি ভাল কাৰ্যকৰ্ম্ম করিতে পারি, পলায়ন না করি, তবে বৎসরান্তে বেতন বধি সম্বন্ধে "বিবেচনা” করিবেন। এখনি আমাকে গিয়া কমে প্রবত্ত হইতে হইবে। তাঁহার গহিণী পীড়িত। আজ দই দিন তাঁহার বামন পলায়ন করাতে বিশেষ বিপন্ন হইয়া পড়িয়াছেন। ২৯২