পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৫৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নগেন্দ্রবাব অত্যন্ত কৃতজ্ঞ হইয়া সাহেবকে ধন্যবাদ দিলেন। ক্লমে সাহেব উঠিয়া Wigfoss zosos, “Well Nagendra Babu, I won't detain you longer"— বলিয়া সরীয় হসত প্রসারিত করিয়া দিলেন। যাইবার সময় বলিলেন, “সবদেশী সম্বন্ধে বিশেষ কোন সংবাদ পাইলেই আমাকে sTFRI GRIÊ-RR ! This Swadếshi must be stamped out-at any cost.” বেতন বন্থির সম্ভাবনায় উৎফুল্ল হইয়া নগেনবাব বললেন, “হাঁ হােজর। আমার যথাসাধ্য আমি করিব।” বাহিরে যাহারা পাবাবধি দশনাথী হইয়া বসিয়াছিল, তাহাদের প্রতি গব্বিত দটিপাত করিয়া নগেন্দ্ৰবাব গাড়ীতে উঠিলেন। ধায্য দিনে বালকত্রয়ের বিচার আরম্ভ হইল। যেদিন তাহারা গ্রেপ্তার হয়, তাহার পরদিন কয়েকটি প্রধান উকীলবাব জামিন হইয়া তাহাদিগকে ছাড়াইয়া লইয়াছিলেন। তাহারাই নিজ অথব্যয়ে, নিজ বহমাল্য সময় নষ্ট করিয়া, মোকদ্দমার তদ্বির ও পরিচালনা করিতেছেন। চাপরাসি পাব উক্তিই বজায় রাখিল। জেরায় তাহকে আসামীর উকীল জিজ্ঞাসা করিলেন, সাহেব তাহাকে বিস্কুটের টিন ছড়িয়া মারিয়া কপালে রক্তপাত করিয়াছে কি না। সে অস্বীকার করিল। বলিল, কিল চড় দ্বারায় ছেলেরাই ও জখম উৎপন্ন "কির সাহেবও, ডামনেটিভের পদানসরণ করিয়া বিস্কুটের টিন ছড়িয়া মারা সাফ অস্বীকার কাঁরলেন। বাজারের কয়েকজন লোক, পথে বিস্কুট ভাঙ্গা সম্বন্ধে সাক্ষ্য দিল, কিন্তু আসামীকে সনাক্ত করিতে পারিল না। ভাঙ্গা বিস্কুটের টিনটা এবং ধলিমিশ্রিত বিস্কুটের গড়া কাগজে করিয়া পলিস কর্তৃক এগজিবিট হইল। সওদাগর আসামীরয়কে সনাক্ত করিয়া বলিলে, ইহার এবং অপর কয়েকজন, চাপরাসির সহিত বিস্কুটের টিন ফিরাইয়া দিতে আসিয়াছিল। বাবরা বাহির হইয়া গেলে, কিঞ্চিৎ পরে দর হইতে মহমহ “বন্দেমাতরম" ধননি শনিয়াছিল। জেরায় বলিল, ইস্কুলের ছেলেরা তাহার দোকানের নিকট পিকেট করিয়া তাহার অনেক ক্ষতি করিয়াছে বটে, কিন্তু তজন্য ছেলেদের উপর তাহার কোনও রাগ বা শত্রতা নাই। হাসপাতালের ডাক্তার বলিলেন, “কপালের জখম কোনও শাণিত কঠিন বস্তুর দ্বারা হইয়াছে।” জেরায় বলিলেন, "চড় কিল দ্বারা ওরপে জখম হওয়া অসম্ভব।” বাদীর সাক্ষী শেষ হইলে সাফাই সাক্ষীর জন্য দিন ধায্য হইল । স্বদেশী দোকানের কমচারী আসিয়া প্রকৃত ঘটনা বলিল। আরওঁ বলিল, ষে ছাত্রগণ দোকানে আসিয়াছিল, তাহদের মধ্যে ডকে কেহ নাই। একজন ডাক্তার বলিলেন, তিনি পথ দিয়া যাইতেছিলেন, চাপরাসি স্বেচ্ছায় বিলাতী বিস্কুটের টিন ছেলেদের দিয়াছে দেখিয়াছেন। দেশী বিস্কুট কিনিবার জন্য ছাত্রের সঙ্গে সে সবদেশী দোকানে গিয়াছে তাহাও দেখিয়াছেন। পলিসের জেরায় ডাক্তারবাব স্বীকার করিলেন ষে, সবদেশী দোকানে তাঁহার দুই শত টাকার শেয়ার আছে এবং তিনি নিজে একজন পাক্কা সবদেশী। ডাকবাণ্ডগলার খানসীমা আসিয়া সাক্ষ্য দিল। চা-কর সাহেব ষে চাপরাসিকে টিন ছড়িয়া মারিয়াছেন তাহা সে বলিল। সেই টিনে কপাল কাটিয়া জখম হইয়াছে; বাজার হইতে যখন আসে তখন জখম ছিল না। পলিসের জেরায় খানসামা স্বীকার করিল যে, উকীলবাবগণ মাঝে মাঝে তাহার নিকট ভূত্য পাঠাইয়া মগীর রোট, কাটলেট প্রভৃতি ফরমাইস দেন। সন্ধ্যার পর একটা গা-ঢাকা হইলেই ভৃত্যগণ আসিয়া সে সব খাদ্য লইয়া যায়। তাহাতে মাসে মাসে তাহার কিঞ্চিৎ উপাত্তজন হইয়া থাকে। లిa