পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৫৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরতের বাপ তাকে ধরে নিয়ে গিয়ে অন্যত্র বিয়ে দিয়ে দেয় ?” “হ্যাঁ, সে কথাও বলেছ।” - সরেনবাব বলিলেন, “আচ্ছা, আর এ কথাও বোধ হয় তোমায় বলেছি যে, এখানকার কলেজে একটা মাস্টারির চেষ্টায় সে এসে আমার বাসায় দিন কয়েক ছিল—তখনও তোমার সঙ্গে আমায় বিয়ে হয়নি।” "কই আমার মনে পড়ে না।" . - “ও সটকেস তারই। এখানকার সে মাটারি চাকরিটা হল না। যাবার সময় সটকেসটা এখানে সে ভুলে ফেলে কলকাতায় চলে যায়। . আমি তাকে ওটা রেল পাশেবলে পাঠিয়ে দিতেও চেয়েছিলাম। সে লিখলে কাশ্মীরে একটা চাকরি, পেয়ে সে রওয়ানা হচ্চে; ওতে বিশেষ দরকারী জিনিষ তার কিছু নেই,—আমার কাছেই রেখে দিতে বলে,—পরে এসে নেবে।” ్యుళా జాగా కా শেষে একটি নিঃশ্বাস ফেলিয়া বলিল, “ওঃ, তাই po - সরেনবাব বলিলেন, “আচ্ছা, এ সটকেস তুমি খুললে কি করে? এর চাবি ত আমাদের কাছে নেই!” মণিক্য বলিল, “কেন, তোমার আপিসের রিঙে এর চাবি ছিল। আমি ভেবেছিলাম, পাছে আমি ও সন্টকেস কোনও দিন-খলি, সেই ভয়ে ওর চাবি তুমি বাড়ীর রিঙে রাখনি।” মণিকা একটা চাবি বাছিয়া বলিল, “এইটে বোধ হয় ।” “এটা ত আমার আপিসের একটা টানার চাবি।”—বলিয়া সেই চাবি দিয়া সমটকেস খুলিলেন। কাপড় জমা হটিকাইতে, হাঁটকাইতে দইখানা বহি এবং একটা খামে ভরা খানকতক সাটিফিকেট বাহির হইল। বাঁহগুলিতে ইংরাজিতে নাম লেখা এস ডট । পার্টিফিকেটগলি কলেজের প্রোফেসারদের লিখিত। তাহাতে পরা নাম শরৎচন্দ্র দত্তই লেখা আছে। সেগুলি মন্ত্রীকে দেখাইয়া সরেনবাব হাতজোড় করিয়া বলিলেন, "হাজরাইন ধমাবতার, আমার এই সাফাই সাক্ষৗগলির এজেহার কি আপনি বিশবাস করছেন না ?” - হজেরাইন রায় প্রকাশ করিলেন—“যাও, তুমি বে-কসর খালাস।” বাপকী বেটী تو میه বৈশাখ মাস। আপার সাকুলার রোডের একটি বাড়ীতে, মিষ্টার জি. লাহিড়ী বার-এট-ল (পরো নাম গিরীন্দ্রনাথ লাহিড়ী) সন্ধ্যার পর পায়জামা সটে পরিধান করিয়া, বিতলের খোলা বারান্দায় ঈজি চেয়ারে বসিয়া আছেন। একটা খবরের কাগজ পড়িতে পড়িতে, দই এক পেগ হইকি পান করিয়া ডিনারের জন্য প্রস্তুত হইতেছেন। তাঁহার বেয়ারা একটা কলাই করা ট্রের উপর একখানা চিঠি আনিয়া, টেবিলের উপর তাহার সামনে রাখিয়া প্রস্থান করিল। চিঠিখানি পড়িয়া লাহিড়ী সাহেব ডাকিলেন, “সরয— ও সরয়-শোন!” তাঁহার পত্নী মিসেস লাহিড়ী এই আহবানে বাহির হইয়া আসিয়া বলিলেন, “কেন ?” “সরেশের মহরি কি চিঠি লিখেছে দেখ।”—বলিয়া লাহিড়ী সাহেব পত্ৰখানি পত্নীর হপো দিলেন। - সরয পত্ৰখানি পড়িয়া বলিলেন, “তাই ত! সরেশবাবর এমন অবস্থা ? পরশও ৩২৫ -