পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৫৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তাহার পরবত্তীর্ণ শনিবারে মেস-বন্ধগণ এক সান্ধাভোজের আয়োজন করিল। খরচটা অবশ্য সরেনেরই। বাসার শরৎবাব বিপিনবাব যোগেশবাব, উমাপদবাব যতীন্দ্রবাব, সতীশবাব ললিতবাব ত আছেনই। বাহির হইতে অতুলবাব, কুমদবাব ও কুঞ্জবাব নিমন্তিত হইয়া আসিয়া এই আনন্দ-উৎসবে যোগদান করিয়াছেন। ভোজন-শক্তি-বন্ধিকল্পে সিন্ধির আয়োজন হইয়াছিল। যবেকগণ সকলে একত্র হইলে, সিদ্ধি বিতরিত হইল। কেহ এক পাব, কেহ দুই পাত্র গ্রহণ করিলেন, মাত্র দুইজন করিলেন না। তাঁহারা বললেন, সিদ্ধি তাঁহাদের মোটেই সহ্য হয় না। কিয়ৎক্ষণ গল্প-গজেবের পর, গান-বাজনা আরম্ভ হইল। হামোনিয়ম ও বাঁয়াতবলা সহযোগে দেড় কি দুই ঘণ্টা গান-বাজনার পর গায়ক ও বাদকেরা শ্ৰান্ত হইয়া পড়িলেন। তখন সিদ্ধির নেশা সকলেরই বেশ জমিয়া আসিয়াছে। আবার গল্প-গজেব আরম্ভ হইল। সতীশবাব এক কোণে বসিয়া সে দিন প্রভাতের সংবাদপত্রখানা লইয়া নাড়াচাড়া করিতেছিলেন। হঠাৎ তিনি বলিয়া উঠিলেন, “ওহে, একটা মজার খবর শনেছ ?” সকলে বলিয়া উঠিল, “কি ? কি ?” “এই যে পড় না শুনি—অথাৎ শোন না, পড়ি।”—বলিয়া তিনি পড়িতে আরম্ভ করিলেন – মফঃস্বল সংবাদ কৃষ্ণনগর—নদীয়া ছাত্রীর কৃতিত্ব। কৃষ্ণনগর বারের সপ্রসিদ্ধ উকীল শ্ৰীযক্ত বাব রামজীবন মুখোপাধ্যায় এম-এ, বি-এল মহাশয়ের কন্যা কুমারী কুন্দমালা দেবী বিগতু ম্যাটরিক পরীক্ষায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সব্বোচ্চ স্থান অধিকার করিয়াছেন, ইহা কৃষ্ণনগরবাসী সকলেরই অত্যন্ত আনন্দ ও গৌরবের বিষয়! এই উপলক্ষে রামজীবনবাব সহরপথ তাবৎ গণ্যমান্য লোককে আগামী শনিবারে সান্ধাভোজে নিমন্ত্ৰণ করিয়াছেন। পথানীয় যাব-নাট্যসমিতি নিমন্ত্ৰিতগণের আনন্দবন্ধনাথ ঐ রজনীতে রামজীবনবাবর গহ-প্রাঙ্গণে ডি-এল রায়ের "চন্দ্রগুপ্ত” নাটকের অভিনয় করিবেন। ললিত চীৎকার করিয়া উঠিল—“হররে—থী চিয়াস ফর এম-এ, বি-এল মহাশয়ের কন্যা মান্ডমালা!” সরেন বলিল, “মণ্ডমালা নয় রে, কুন্দমালা। নামটি কিন্তু বেশ মিটি।” অতুলবাব নামক এক ভদ্রলোক দেওয়ালে হেলান দিয়া উদ্ধৰমখে গভীর-স্বরে বুলিলেন, “আশ্চয্য ! আশ্চয" " - ললিত বলিল, “আহা, কি আর আশ্চৰ্য্য ? বাঙ্গালীর মেয়ের ইউনিভাসিটিতে ফার্ট হওয়া, আজকালকার দিনে মোটেই আর আশচয" ব্যাপার নয়।” অতুলবাব বললেন, “সে জন্যে আশ্চৰ্য্য বলিনি হে —আমি দিব্যদটিতে ব্যাপারটা যা দেখতে পাচ্ছি—তা আশ্চৰ্য্য ! অতীব আশ্চৰ্য্য!” - যোগেশবাব বলিলেন, “দিব্যচক্ষে কি দেখছ অতুল বলই না শুনি !” অতুল বলিল, “এর ভিতরে প্রজাপতির হাত সপটি দেখতে পাচ্ছি।” উমাপদ বলিল, “কিসের ভিতর ?” অতুল বলিল, “প্রথমতঃ দেখ, সরেনও ফার্ট হয়েছে, কুন্দমালাও তাই।” “দ্বিতীয়তঃ ?” -দ্বিতীয়তঃ, সরেনের কৃতিত্বের জন্যে আনন্দ-ভোজের আয়োজন আজ এখানে পটলডাঙ্গায়, কুন্দমালার কৃতিত্বের জন্যে আনন্দভোজের আয়োজন ঠিক আজই, ঠিক এই সময়েই কৃষ্ণনগরে চলছে।” , - “তৃতীয়তঃ ?” ○、ジや