পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৬০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


"এবার কি করবে ?” “টেলিগ্রামের ফরম আছে ?” “আছে।” “বের কর দিকিন খানকতক।" জগৎবাব টেলিগ্রামের ফরম বাহির করিলেন। সবোধ পলিলেন—“বেংগলী, অমতবাজার আর বন্দেমাতরম কাগজে তার পাঠাতে হবে।” “আমার কীৰ্ত্তি ।” “সে হয়ে গেছে। বেংগলীর সংবাদদাতা স্কুমারবাব তোমার নামও লিখে দিয়েছেন। লিখে দিয়েছেন যে, বারের লোকের মধ্যে একমাত্র তুমিই বাড়ী সাজিয়েছিলে আর দরবারে উপস্থিত ছিলে।” “আর. সে গোবরজলের কথােটা ?” "সেটা বোধ হয় লেখেন নি ।” হবে । ওটা বড় dramatic হযেছে। সাধারণের কলপনাকে ভারি উত্তেজিত করবে !" “আরে সেইটেই হল আসল। , এই দেখ, আমি টেলিগ্রাম মসবিদা করে এনেছি। সকুমারবাবরে টেলিগ্রামে আমার প্রতি যথেষ্ট গালাগালি নেই। সেইটে বড় দরকার। আর গোবরজলের কথাটা আর Welcome to Pandemoniumট বিশেষভাবে উল্লেখ করতে হবে। ওটা বড় dramatic হয়েছে। সাধারণের কল্পনা ভারি উত্তেজিত করবে।” জগৎবাব টেলিগ্রাম নকল করিয়া তৎক্ষণাৎ রওনা করিয়া দিলেন । - পরদিন প্রাতঃকালে সবোধকবে সেই মাত্র গাত্রে থান করিয়া বাহিরে আসিয়াছেন, দেখিলেন কোতোয়লি হইতে দুইজন দারোগা আসিয়া উপস্থিত। একজন দারোগা বলিলেন, “মশায়, শুনলাম নাকি কাল আপনি যখন দরবার থেকে ফিরছিলেন, তখন ছাদ থেকে আপনার গায়ে গোবরগোল জল ফেলেছে ন” * “ফেলেছিল বটে।” “এ কথা সাহেবদের কাণে গেছে । পুলিস সাহেব আমাদের হুকুম দিয়েছেন, আপনি যদি মোকদ্দমম চালাতে ইচ্ছা করেন, তবে আমরা সাক্ষী প্রমাণ ইত্যাদি সংগ্রহ করে আপনাকে সাহায্য করব। দুঃখের বিষয় এটা পলিসগ্রহণীয় মোকদ্দমা নয়। হলে, আমরা কালই সে বাড়ীর ধাড়িবাচ্ছ সবাইকে ধরে নিয়ে গিয়ে হজতে পারতাম। আপনি আজ একটা নালিস করে দিন ।” - সবোধববি বলিলেন, "কাউকে ত দেখতে পাইনি, কার নামে নালিস করব ?” “ও বাড়ীতে ছেলেপিলে যারা আছে, তাদের নাম আমরা এখনি সংগ্রহ করে দিচ্ছি। আর তাদের বাপ-উকীলবাবটি—তিনি নিশ্চয় ওদের abet করেছেন। তাঁরও নাম লাগিয়ে দিন।” সবোধ কিছুক্ষণ চিন্তা করিলেন। শেষে বলিলেন, “পলিস সাহেবকে আমার সেলাম জানিয়ে বলবেন, আমি ত কাউকে দেখতে পাইনি, কাউকে সনাক্ত করতে পারব না। এ অবস্থায় নালিস করলে কোনও ফল হবে না।” দারোগাবাবরা তখন দুঃখিত মনে প্রস্থান করিলেন। সবোধবাব ধমপান করিতে আরম্ভ করিলেন। ভাবিলেন—ষে ছেলেরা আমার মাথায় গোবরজল ঢেলেছিল, তারা আমার আশাতীত উপকার করেছে। খবরটা এতক্ষণ বোধ হয় কলকাতায় বেরিয়ে গেল। সমসতটা জড়িয়ে এমন একটা হৈ চৈ উপস্থিত হবে যে, আমার কাষ"সিন্ধি হতে বেশী বিলম্বব হবে না । বাসতবিক তাহাই হুইল । তিন দিনের মধ্যে দেশময় ঢৗঢ়ী পড়িয়া গেল। ইংরাজি কাগজ হইতে এই সংবাদ নকল করিয়া বাঙ্গালা কাগজের সম্পাদকেরা দীঘ দীঘ গালি a -