পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৬১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাপ-এ সময় আমার লজ্জা নেই ।” গহিণী ইহাকে হরগোবিন্দবাবার কাছে লইয়া গেলেন। যাবতী ডাক্তারবাবর পা জড়াইয়া ধরিয়া বলিলেন, “বাবা, আমায় রক্ষা করন।” গহিণী সব কথা বঝাইয়া বলিলেন। যাবতী তখন বলিলেন, “তিনি বলছিলেন, খানাতল্লাসী করবার সময় ওষধের আলমারিতে একটা ব্রাড়ির বোতল ছিল, ব্রাণ্ডি মনে করে তিনি এক সমক খেয়েছিলেন । এখন তাঁর সন্দেহ হচ্চে সেটা ব্রাপিড নয়, কোনও বিষ-টিষ।” একথা শুনিয়া ডাণ্ডারবাব, বলিলেন, “ওষধের আলমারিতে ক্লাডির বোতল ?” শনিবামাত্র ডাক্তারবাবর মাথ শাক হইল। তিনি যাবতীকে সম্বোধন করিয়া বলিলেন, “আপনি কি গাড়ীতে এসেছেন ?” “হাঁ।” “তবে আমি ঐ গাড়ীতে থানায় চললাম। আপনি এখানে অপেক্ষা করন। গাড়ী ফিরে এলে আপনি যাবেন।” যাবতী উঠিয়া দাঁড়াইয়া, সজলনেত্রে বললেন, "বাবা, আমার কপালের সিদর থাকবে ত?” ডাক্তারবাব বললেন, “সে ঈশ্বরের হাত মা।”—বলিয়া তিনি ঔষধ ও যম্মাদি লইয়া কয়েক মহত্তের মধ্যেই নিম্প্রান্ত হইয়া গেলেন। সারারান্ত্রি জাগিয়া ডাক্তারবাব চিকিৎসা করিলেন। সে যাত্রা দারোগ রক্ষা পাইল। যথাসময়ে সাহেব মারা মোকদ্দমা নিম্পত্তি হইয়া গেল। প্রমাণাভাবে অজয় ও সশীল খালাস পাইল। অন্য সকলের ছয় মাস করিয়া কারাদণ্ডের হাকুম হইল। I grRe, షిరిపిd; } প্রত্যাবৰ্ত্তন প্রথম পরিচ্ছেদ ॥ একাদশী-তত্ত্ব বিংশতি বৎসর পবে, কলিকাতার কোনও ছাত্রাবাসে রামনিধি দাস নামক একটি যুবক থাকিয়া কলেজে লেখাপড়া করিতেন। রামনিধিবীব ছাত্র হইলেও একটু বয়ঃপ্রাপ্ত --অনামান পঞ্চবিংশতি বর্ষ উত্তীণ হইয়াছিল। লোকটির বাড়ী বীরভূম জেলায়। কথায় বাত্তায় একটা "রেঢ়ো" টান বেশ বোঝা যাইত। এ কারণে পরোক্ষে বাসার ছেলেরা তাঁহাকে উল্লেখ করিয়া নানাবিধ হাসি তামাসা করিত। রামনিধিবাব লোকটি বড় সেখীন। পিতার অনেক ধন সম্পত্তি ছিল,—সে সবই তিনি পাইয়াছেন। বাসার একটি কক্ষ তিনি একলা লইয়া থাকেন,--তজন্য বেশী ভাড়া দিতে হয়। ঘরের মেঝেটি আগ্রার শতরঞ্জ দিয়া আবৃত। ছত্রীওয়ালা একটি নেওয়ারের খাটে শাদা ধবধবে নেটের মশার ঝুলিতেছে। এক দিকে একটি টেবিল—তাহার চারি পাশে কেদারা। নিকটে পন্তেকাধারে তাঁহার বাঁধানো চকচকে পাঠ্য পুস্তকগুলি। অপর দিকে একটি তেপায়ার উপর বহৎ দপণ। আশেপাশে নানাবিধ সুগন্ধি দ্রব্য—পোমাড, পাউডার প্রভৃতি সশোভিত। সেদিন রবিবার, বাসা অনেকটা খালি হইয়া গিয়াছে। যে সকল ছাত্রের বাড়ী অথবা শবশরোলয় নিকট, তাহারা প্রস্থান করিয়াছে—আবার সোমবারে ফিরিয়া আসিবে। রামনিধি ও অপর দুইজন ছাত্র মাত্র বাসায় আছেন। এই দুইটি ছাত্র বৈকালে রামনিধিবাবর কক্ষে বসিয়া ধর্ম সম্বন্ধে তক করিতেছিলেন। যে সময়ের কথা বলিতেছি, তখন হিন্দধমের পনের খান আরম্ভ হইয়াছে। ডি ফর অল দে ত আৰু ক্ষে আর সেচল নে মসল - - २