পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৭২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তোমাদের বাবর মোকদ্দমা হবে, আমরা অনেক ছেলে দেখতে যাব, আজ আর ইস্কুল যাচ্ছিনে বলে, হাসতে হাসতে চলে গেল ; নয় বউমা, আমি এসে বলিীন ?” হেমাঙ্গিনী বলিল—“হ্যাঁ বলেছিলে। সে সব কথা হবে এখন বি, তুমি কয়লায় আগন দিয়ে বাজার থেকে দ্য পয়সার চিনি আন। বাধকে একট, সরবৎ করে দিই, জল থান ৷” - ঝি চলিয়া গেল। নলিনী বলিল-“জলখাবার আনতে দিতে হবে না—আমি এইমাত্র জলখাবার থেয়ে এসেছি।” নলিনী তখন সংক্ষেপে, শনিবার হইতে নিক্স বত্তান্ত বর্ণনা করিয়া কহিল—“বোধ হয় অনাহারে মরতে হবে না। সেই বাবটি বলেছেন, ত্রিশ চল্লিশ টাক। মাইনের একটি চাকরি তিনি আমায় জুটিয়ে দেবেন। দেখি ঝি হয়।" হেমাঙ্গিনী বলিল-“নিশ্চয় হবে। ভগবান কখনই আমাদের ভুলবেন না। তুমি এস, সনান করে ফেল ।” স্নান করিতে করিতে ঝির নিকট বাকী ইতিহাসটুকুও নলিনী অবগত হইল। মোকদ্দমার কথা শুনিয়া বোসেদের মেঝবাবরে কাছে আবার সে গিয়াছিল। মেঝবাব সকল বক্তান্ত অবগত হইয়া বলিয়াছিলেন, সামান্য মারপিটের মোকদ্দমা, বেশী কি আর BBBS BB BB BB BB BB BBBB BBB BBB BB ttBB BB BBB পুরাতন বালাযোড়াটা বন্ধক রাখিয়া অনেক কটে পঞ্চাশটি টাকা সংগ্ৰহ করিয়া, লোকে জিজ্ঞাসা করিতে করিতে পলিস আদালতের দিকে যাইতেছিল! কাছাকাছি পৌছিয়া দেখিল বাবা একজন অপরিচিত লোকের সহিত আদালতের সিড়ি হইতে নামিয়া- গাড়ী করিয়া কোথা চলিয়া গেলেন। ও বাব ও বাব বলিয়া ঝি ডাকিয়াও ছিল, কিন্তু পাব তাহা শুনিতে পান নাই। সপ্তম পরিচ্ছেদ পরদিন বেলা ৮টার সময় নলিনী গিয়া ভুবনেশ্বরবাবরে সহিত সাক্ষাৎ করিল। ভুবনেশ্বরবাব নলিনীকে দেখিয়া সম্মিত যদনে বললেন—“আসন-আসন। বসন। তার পর, বাড়ী গিয়ে কাল কি দেখলেন? তাঁরা খুবই উতলা হয়েছিলেন বোধ হয় ?” “খব উতলা হয়েছিলেন। তবে, কাল ৮টা থেকে আমার খবরটা তাঁরা পেয়েছিলেন, প্রাণে বেচে অছি এটুকু জানতে পেরেছিলেন।” বলিয়া খাহা যাহা ঘাঁটয়াছিল, সমস্তই নলিনী বর্ণনা করিল। তাহার এই পারিবারিক কয়ণকাহিনী শুনিতে শুনিতে ভুকনবালর চক্ষ দটি সজল হইয়া উঠিল। নলিনীর কথা শেষ হইলে ভুবনবাব কিয়ৎক্ষণ নিস্তব্ধ হইয়।. বসিয়া রহিলেন। শেষে একটি দীঘনিঃশবাস ত্যাগ করিয়া বলিলেন—“তামাক খাবেন? ওরে, তামাক দে।" নলিনী বলিল—“আমার সে বিষয়টা—” ভুবনবাব বলিলেন--"চাকরির কথা জিজ্ঞাসা করছেন ? কাল সন্ধ্যার পর ঐ জন্যেই আমি বেরিয়েছিলাম। শ্যামবাজারে যোগানবাব বলে আমার এক বন্ধ আছেন, তিনি ব্ৰাউন জোন্স কোম্পানির বাড়ীর হেডক্লাক। আপিসে তাঁর ভারি খাতির, সাহেবেরা একবারে হাতধরা! আপিস খুব ভাল, উন্নতিও শীগগির শীগগির হয়। যোগানবাব বললেন—তাঁদের আপিসে এ সময় কোনও চাকরিই খালি নেই। তবে কাজ অনেক বেড়েছে, সাহেবদের বলে কয়ে আপনাকে পেড় এপ্রেন্টিস করে ঢুকিয়ে নিতে পারেন। কিন্তু মাইনে মোটে পাঁচশটি টাকা।“ শনিয়া নলিনী বড় বিমৰ্ষ হইল। বলিল-“পাঁচশ টাকায় কি করে চলবে ?” “তাই ত বলছি । আজকাল চাকরির বাজার যা পড়েছে সে অ্যর কহতব্য নয় ! তবে যোগানবাব বললেন—এক বছর ঐ পাঁচশ টাকা মাইনেতে এপ্রেণ্টিসি করে, আপনি যখন পাকা হবেন, তখন আপনার মাইনে হবে পঞ্চাশ বছরে পাঁচ টাকা বেড়ে বেড়ে পাঁচ বছরে శిe ها متماد