পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৭৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উজয়ের সমবেত আক্রমণেও তুমি অটল। ভাই. তুমি অগ্নিপরীক্ষায় উত্তীণ হইয়াছ। আর কোনও আশঙ্কা নাই। তুমি তোমায় সম্পত্তির যে অংশ নিজদোষে নস্ট করিয়াছ, তাহা ত গিয়াছে। আমি যতটুকু বাঁচাইতে পারিয়াছি, তাহা আজ তোমায় প্রত্যপণ করিতেছি । তোমাকে যত্ন টাকা অামি ধার দিয়াছিলাম, তাহর সদের হার শতকরা বারো টাকা হিসাবে লেখা ছিল। আমি ব্যাংক হইতে যে সমুদ পাই, সেই সম্মাদ মাত্র করিয়া পাঁচ বৎসরাতে তোমার কাছে আমার প্রাপ্য ধ্যয করি। যে দিন তোমার বাড়ী দুখানি আমি DDBB DBS BBB BB BBB BB BB BBDB BBBB BBB BBB BBBB BBBB পাইয়াছিলাম। আমার নিক্স হিসাবের প্রাপ্য টাকা, প্রাপ্তমলা হুইতে কাটিয়া লইয়া, বাকী টীকা ব্যাকে জমা রাখিয়াছিলাম। এক বৎসরে সদে আসলে তোমার যাহা হইয়াছে, সেই পরিমাণ একখানি চেক এই পত্রমধ্যে তোমায় পাঠাইলাম । তোমার বসতবাটীর দলিলখনি তোমায় ফেরৎ পাঠাইলাম। উহার পঠে দাবী পারশোল লিখিয়া দস্তখং করিয়া দিলাম। ঐটুকু রেজিস্টারি করাইরা লইবে। BBBB BBBBBS BBB BB BBBB BBBB BB BB BB BB BBB তোমায় ফিরাইয়া দিব। কিন্তু তাহা হইলে, তুমি আমার নিকট আর্থিকভাবে উপকৃত, এই একটা ধারণা তোমার মনে থাকিয়া যাইত। তাহাতে তোমার আত্মসন্মান থব হইত--তাই ও পন্থা আমি পরিত্যাগ করিলাম। তুমি এখন যাহা পাইলে, তাহা তোমার নাযা প্রাপ্তির এক পয়সাও অধিক নহে। আমার কাছে তুমি আর্থিকভাবে উপকৃত, এ অত্বগুলানির কারুণ তোমার রাঁহল না। তুমি যদি ঐ আপিসে চাকরি করতে ইচ্ছা কর, আমি যোগীন্দ্রপাবকে বলিয়া দিব এখন। তিনি অনুরোধ করলেই বড়সাহেব পদ্ধ হকুম প্রত্যাহার করিয়া তোমায় স্থায়? পদ দিবেন। যদি চাকরি করিতে ইচ্ছা না থাকে, ঐ বারো হাজার টাকা মলধন লইয়া তুমি দালালী ব্যবসায় কিংবা অপর কোনও ব্যবসায় করিতে পায়। কিন্তু পৈতৃক ব্যবসায় অবলম্বন করাই ভাল-সে কায তুমি কিছুদিন করিয়াও ছিলে--একবারে আনাড়ি নও। তাই, আমি নিজে গৈয়াই তোমায় এ চেক দিতে পারিতাম এবং এ সকল কথা বলিতে পারতাম। কিন্তু তাহার অপেক্ষা পত্ৰলেখাই সহজ মনে করিলাম। অনেক দিন তোমায় দেখি নাই-একদিন অবসর মত আসিও । - তোমার বাল্যবধ:-- শ্রীবিপিনবিহারী বন্দোপাধ্যায় পত্রপাঠ করিয়া নলিনী সন্ত্রীকে শনাইল। তারপর গাড়ী ডাকিয়া, লাড়ীতে তালারন্ধ করিয়া সকলে কালীঘাটে পজো দিতে গেল। ফিরিবার পথে সে গাড়ী বিপিনবাবরে ফটক এইবার স্বরবানের বিনা ওজয়েই পার হইয়া গেল। বিপিনবাবরে সী, হেমাঙ্গিনীকে সহজে ছুটি দিলেন না। সকলে সাধ্যভোজন সেইখানেই সমাধা করিয়া যখন গহে । প্রত্যাগমন করিল, তখন গিজার ঘড়িতে ঢং ঢেং করিয়া এগারেট বাজিতেছে। [ অগ্রহায়ণ-মাঘ ১৩১১ ] আদরিণী প্রথম পরিচ্ছেদ পাড়ার নগেন ডাক্তার ও জুনিয়ার উকিল কুঞ্জবিহারীবাব বিকালে পাণ চিরাইতে “মখেয্যে মশায়, পীরগঞ্জের বাবদের বাড়ী থেকে আমরা নিমন্ত্রণ পেয়েছি, এই সোমবার দিন মেঝবাবর মেয়ের বিয়ে। তুন নাট আর কম হয়। বেনারস থেকে বই S8S -