পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৭৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আসিয়া রীতিমত তদন্ত করবেন। আদেশলিপির সঙ্গে এক টুকরা সাধারণ বালির কাগজ গাঁথা—তাহাতে কাঁচা হতে বড় বড় অক্ষরে বাঙ্গালায় লেখা আছেঃ সিজক্ত কালাকঠোর সাএব বাহাদর কমলেস। পরে এখানে জে নতুন মেম ডাকতার আসিয়াছে তিনি ওতিসয় খারাব নোক তেনার চরিত্তির ভাল নহে একানকার দিতিও হাকিম ঘোষ সাএবের সগগে তিনি বরই বারাবারি করিতেছে তেনার চারৰ্ত্তির বিসয় সকলেই জানিয়াছে এই জন্য এখানকার কোনও ভদরনোক নিজবাটিতে তেনকে ডাকিতে পারে না অতেব আপনি সিগ্ন আসিয়া তদনত করিয়া ওই মেম ডাকতারকে বদলি করিতে আগ্যা হয় ॥ পড়িয়া সত্যেদের মুখ ও কণ ক্ৰোধে রন্ধুবৰ্ণ ধারণ করল। পরখানা সজোরে টেবিলের উপর ফেলিয়া বলিল--"মিথ্যা !—মিথা! আগাগোড়া মিথ্যা ” ডেপুটিবাব, শান্তভাবে তাহার মাখের পানে চাহিয়া রহিলেন। কিয়ৎক্ষণ পরে বলিলেন—“এ চিঠি পেয়ে আমিও কিছু কিছু তদন্ত করেছি।” সত্যেন্দ্র বিকৃতস্বরে বলিল—“তদন্তে কি জেনেছেন ?” নী সহরসন্ধ লোক যা জানে, তাই জানতে পেরেছি।” ει সে ?” "এই বৈ, তুমি প্রায়ই অনেক রাত্রি পর্যন্ত লেডি ডাক্তারের বাড়ীতে থাক। কয়েকদিন অনেক রাত্রি পয্যন্ত দুজনে ডাকবাঙ্গলাতেও একত্র ছিলে।” “তাতে কি প্রমাণ হয় ?” - সরেশবাব মুখ অবনত করিয়া বিরক্তির স্বরে বলিলেন—“কি প্রমাণ হয় তুমি নিজেই মনে বঝে দেখ। তুমি ত ছেলেমানষে নও।” হস্তদ্বয়ের মধ্যে মস্তক রক্ষা করিয়া সত্যেন্দ্রনাথ চিন্তা করিতে লাগিল। সরেশবাব মদ ভৎসনার স্বরে বলিলেন—“শাধ নিজের বধির দোষে এই কেলেঙ্কারটি করলে। সময় থাকতে সাবধান যদি হতে । তখন বলেছিলাম বলে তুমি চটেই গিয়েছিলে। এখন কি করে সামলাবে সামলাও।” সত্যেন্দ্র মাথা তুলিল। —“আপনি বিশ্বাস করেন আমি দোষী ?” সমেশবাব বললেন—“না—তবে কতকটা অবিবেচনা হয়েছে বটে।" সত্যেন্দ্র বলিল—“সাহেব এসে তদন্তে এই সকল কথা জানতে পারলে, তিনি কি করবেন মনে হয় ?” “আমার মনে হয়, লেডি ডাক্তারকে বরখাস্ত করবেন—নয় তোমাকে এখান থেকে বদলি করে দেবেন। দুজনকে এক জায়গায় যে রাখবেন না, সেটা নিশ্চয়।” “কিন্তু মিস মজুমদার সম্পণে নিদ্দোষী। দোষ যা হয়েছে—আপনি যা বললেন, অবিবেচনার দোষ—সে আমি করেছি। আমার দোষে সে গরীবের চাকরি যাবে? তার চেয়ে আমায় বদলি করে দেন সেই ভাল।” - সরেশবাব বললেন—“তুমি বললে রাগ কর—তব আমি বলি-তুমি তাকে যতটা অবলা সরলা মনে কর তা সে নয়। তার যদি কিছমাত্র আত্মসমানের জ্ঞান থাকত, তা হলে কখনই সে তোমার এতটা বাড়াবাড়ির প্রশ্রয় দিত না। দিয়েছে, জেনেশ্যনে—খালি তোমায় গাঁথবার মংলবে।" সত্যেন্দ্র মাথা নাড়িয়া বলিল—“না সরেশবাবা-ঐটে আপনার ভুল। তার মনে কিছমাত্র খলতা নেই। আমার সঙ্গে যে এতটা মেলামেশা করেছে—সে কেবলমাত্র নিদোষ অমোদের জন্যে। আর, আমাদের আচরণ থেকে অন্যলোকে যে অন্য কিছু মনে করতে পারে, সেটা তার কল্পনাতেও আসেনি।" সরেশবাব সন্দিগ্ধভাবে মাথা নাড়িয়া বলিলেন—“আমি শনেছি, ইংরেজদের মধ্যেও অনাত্মীয় যুবকযবতীর মেলামেশা সবুধে খাব কড়া নিঃস্ট্র, এ রকম ভাবে মেলামেশা তাই ন ন আল কুকু র-ফ ল ৱ এ টেলে