পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৮৯৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কন্যাকে তিনি কক্ষান্তরে ডাকিয়া লইয়া গিয়া আবার অনেক করিয়া বঝাইলেন, কিন্তু ফ্লোরা কিছুতেই তাহার দাবী ছাড়িতে চাহিল নী। ইতিমধ্যে চেন ও কলার কিনিবার জন্য দাসীকে সে দোকানে পাঠাইয়া দিয়ছে। চেন ও কলার আসিবামার ফ্লোরা টোবির গলা হইতে পরাতন কলারটি খুলিয়া শরতের হাতে দিল্প। নতন কলার পরিতে টোবি খুব আপত্তি করিতে লাগিল, কিন্তু ছোট কুকুর, অত বড় মেয়ের সঙ্গে জোরে সে পাবিবে কেন ? ফ্লোরা তাহার গলায় নতন চেন ও কলার দিয়া, সোফার পায়ায় তাহাকে বাঁধিল । শরৎ উঠিয়া দাঁড়াইল, বলিল, “মিসেস কলিন্স এখন তবে বিদায় লই ।” মিসেস কলিন্স বলিলেন, এখনি যাইবেন ?” টোবির দিকে শরৎ পশ্চাৎ ফিরিয়া দাঁড় ইয়া ছিল। ফ্লোরা আসিয়া তাহার সহিত করমদন করিয়া বলিল, “আপনাব দয়া কখনও আমি ভুলিব না। কুকুরটি লইলাম বলিয়া আমার অপরাধ গ্রহণ করিবেন না মিস্টর বাগচী ।” - শরৎ বলিল, “অপরাধ কিসের ?”—তাহার ইচ্ছা হইল, কুকুরকে যত্নে রাখিবার জন্য ফ্লোরাকে একট অনবোধ জানায়; কিন্তু তাহার বকটা কেমন করিতে লাগিল, মাখ দিয়া কথা বাহির করিতে পারিল না । মিসেস কলিন্স বলিলেন, “গড বাই মিষ্টার বাগচী । আপনার সৌজন্যে আমি বাসতবিকই মগধ হইলাম। আপনাকে পৌছাইরা দিবার জন্য আমার কার অপেক্ষ কবিয়া আছে ।” শরৎ বলিল, “ধন্যবাদ। কারে প্রয়োজন নাই, আমি হাঁটিয়াই বাড়ী যাইব । এই কাছেই ত । গড় বাই।” শরৎ কক্ষের বাহির হইবামাত্র টোলি ঝড়াং ঝড়াং করিয়া চেনে হ্যাঁচকা টান দিতে দিতে উচ্চ চীৎকার আরম্ভ করিল। সিড়ি দিয়া নামিতে শরতের পা কাঁপিতে লাগিল । সিড়ির ব্যানিস্টার ধরিয়া কোনও মতে সে/ নামিতে লাগিল। টোবির ব্যাকুল চীৎকার তাহার কণে যেন গলিত লৌহের মত প্রবেশ করতেছিল। ত্রিতল হইতে দ্বিতল, দ্বিতল হইতে একতলে নমিয়া, টুপি ও ছড়ি লইবার জন্য শরৎ হলে গিয়া দাঁড়াইল। টোবির ব্যাকুল কুন্দনের স্বর তখনও তাহার কাণে আসিতেছে। গহভূত টুপী ও ছড়িটি তাহার হাতে দিয়া, বার খলিয়া, তাহকে অভিবাদন করিল। রাজপথে পে'ছিয়া দ্রুতবেগে বাসার দিকে চলিতে আরম্ভ করিল। চতুর্থ পরিচ্ছেদ বাসায় পেপছিয়া, ল্যাচ-কী দিয়া দরজা খুলিয়া, টপী ছড়ি হলে ছাড়িয়া শরৎকুমার একেবারে বিতলে শয়নকক্ষে গিয়া বার বন্ধ করিয়া দিল। দপ'ণে হঠাৎ নিজ প্রতিবিম্ব দেখিয়া ভাবিল, “কার সঙ্গে দেখা হয়নি সে ভালই হয়েছে।”—তাহার চক্ষ বসিয়া গিয়াছে, ছল ছল করিতেছে, ওঠযগল কাঁপিয়া কাঁপিয়া উঠিতেছে। কোট এবং কামিজের কলার খলিয়া ফেলিয়া, একটা আরামচৌকিতে শরৎ এলাইয়া পড়িল। তাহদের বাড়ীতে সিড়ি নামিবার সময় হলে দাঁড়াইয়া টোবির যে হদয়বিদারক ক্ৰন্দন সে শনিয়া আসিযছিল, তাহাই অবিশ্রাতভাবে তাহার কণে প্রতিধ্বনিত হইতে লাগিল। খানিকক্ষণ চক্ষ বজিয়া শরৎকুমার চেয়ারে পড়িয়া রহিল। কল্পনায় দেখতে পাইল তাহদের বাড়ীতে টোবি বাঁধা রহিয়াছে, বসিয়া হোহোহো করিয়া ক্ৰমাগত কাঁদিতেছে, কিছতেই শান্ত হইতেছে না। ভাবিতে ভাবিতে শরতের চক্ষ দিয় টপ টপ করিয়া জল পড়িতে লাগিল! তাড়াতাড়ি শরৎ রমাল বাহির করিয়া চোখের জল মছিয়া ফেলিল। . তাহার মনে হইল-আমি এ কি করিতেছি!—কাঁদিতেছি –পরষ মনুষ হইয়া, দবল সীলোকের ෆෆෆ