পাতা:প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়ের গল্পসমগ্র.djvu/৯৮৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাবটির মখে পনবার একটু হাসি দেখা দিল। জিজ্ঞাসা করিলেন, “বাবকে কামার কথা বলেছ ?” “আজ্ঞে হ্যাঁ, বলেছি। তিনিই বললেন, বাবটি কে, কোথা থেকে আসছেন, জিজ্ঞাসা কয়ে আয় ।” “তোমার বাব আমায় চিনবেন হে, চিনবেন। যাও, তাঁকে ডেকে আন৷”—বলিয়া আগন্তুক ধমপান আরম্ভ করিলেন। ভূত্য চলিয়া গেল। বৈঠকখানার ঘড়িটিতে ঠং ঠং করিয়া চারিটা বাজিল। দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ ॥ পন্বেকথা থেলো হ:কাটি হাতে ফরৎ ফরৎ করিয়া যিনি তামাক খাইতেছেন, তাঁহার নাম নন্দলাল চট্টোপাধ্যায়। এই গ্রামেই ইহার আদিবাস। কিয়ৎক্ষণ পাবে যে ভগ্নস্তাপের নিকট দাঁড়াইয়া চাদরের প্রান্তে চক্ষ মাছিয়ছিলেন, সেই ছিল ইহার পৈত্রিক ভিটা ও জন্মস্থান। বিনয়বাবদের সহিত জ্ঞাতি সম্পক । পাঁচশ বৎসর পবে ইস্কুল-পলায়ন জন্য পিতৃব্যের নিকট জুতা খাইয়া, খড়ীমার ব্যঞ্জ ভাগিয়া টাকা লইয়া পিতৃমাতৃহীন নন্দলাল যখন পশ্চিমগামী হন, তখন তাঁহার বয়স ষোল বৎসর মাত্র। পশ্চিম বলিয়া পশ্চিম–একেবারে দেশীয় স্থা ভাওয়ালপরে। কতক BBS BBB BBB BBS BB BBBBBS SBBB BBBB BBBB DDDBB BBB কৰ্ম্মে নিযুক্ত, নদীয়া জেলা নিবাসী রামজয় বিশ্বাস নামক এক কায়স্থ ভদ্রলোক ভাওয়ালপরে সপরিবারে বাস করিতেন। তিনিই তখন সেখানে একমাত্র বাঙ্গালী । ক্ষুধাতুর স্থিৰবলন কপদকশন্য বালক নন্দলাল তাঁহারই নিকট আশ্রয়ভিক্ষা করিল। রামজয় দয়াপরবশ হইয়া, খোরাক পোষাক দই টাকা বেতনে নন্দলালকে নিজগৃহে পাচক নিযুক্ত করিলেন। যাহারা ফাসী জানে, রাজ্যে তাহাদের খ্যাতি প্রতিপত্তি দেখিয়া নন্দলালেরও সখ হুইল সে ফাসী পড়িবে। বেতনের দুইটি টাকাই ব্যয় করিয়া, প্রতিবেশী মন্সেী নেউলকিশোরের নিকট অবসর সময়ে প্রত্যহ সে উন্দ ও ফাসী ভাষা শিক্ষা করিতে লাগিল। দেশে থাকিতে যে বালক বাদেবীকে বাঘতুল্য মনে করিয়া সব্বদা তাঁহার নিকট হইতে দরে দূরে থাকিত, সেই, বিদেশে উদরান্নের জন্য হীনকক্ষেম প্রবত্ত হইয়া, লেখাপড়ায় আশ্চম মনোযোগ দেখাইতে লাগিল। দুই-তিন বৎসরেই সে উন্দ ও ফাসী ভাষায় বাৎপন্ন হইয়া উঠিল। তাহার মেধা ও অধ্যবসায় দেখিয়া রামজয় ভারি খসী হইয়াছিলেন; পাচকবত্তি ছাড়াইয়া, আদালতের নকল সেরেস্তায় ২০, বেতনে তাহাকে একটি মহেনরীগিরি কম্ব করিয়া দিলেন। আরও দই তিন বৎসর পরে, পেন্সন লইয়া রামজয়ের দেশে ফিরিবার সময় উপস্থিত হইলে, আদালতে নন্দলালের ওকালতী করিবার সনন্দের জন্য প্রধান Btt BBBB BBBB B BBBB BB BBBS B BBB BBBBB BBBBBB অসাধারণ অধিকার দেখিয়া, সহজেই সনন্দ সহি করিয়া দিলেন। নবাব সরকার হইতে ভূমিদন পাইয়া রামজয় ভাওয়ালপরে ষে গহখানি নিম্মর্পণ করিয়াছিলেন, তাহা পাঁচ বৎসর মধ্যে মল পরিশোধের মেয়াদে নন্দলালকে কোবালা করিয়া দিয়া তিনি দেশে চলিয়া আসিলেন । অলপদিনেই নন্দলালের পশার জমিয়া গেল, ওকালতীতে বেশ অথোপাজন হইতে লাগিল। গান্ধব-মতে এক সন্দরী ষোড়শী রাজপত বিধবার পাণিগ্রহণ করিয়া তিনি লখে কালষাপন করিতে লাগিলেন। বিদ্যালয়ে কিঞ্চিৎ ইংরাজি শিক্ষা হইয়াছিল এখন হইতে অবসর মত সে বিদ্যারও চচ্চা করিতে লাগিলেন। ফলপরে হইতে নন্দলালের পলায়নের পর তাঁহার খড়া কিছুদিন তাঁহার অনুসন্ধান করিয়াছিলেন। পৈত্রিক সম্পত্তির অংশীদারকে তাঁহার এই অনুসন্ধান, নিতান্তই “ঢ়েলামারা গোছা হইয়াছিল। মহরীগিরি চাকরী হওয়ার পর নন্দলাল বাড়ীতে প্রথম চিঠি - අ5 -