পাতা:প্রহাসিনী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নাতবউ অন্তরে তার যে মধুমাধুরী পুঞ্জিত স্থপ্রকাশিত সুন্দর হাতে সন্দেশে । লুব্ধ কবির চিত্ত গভীর গুঞ্জিত, মত্ত মধুপ মিষ্টরসের গন্ধে সে । দাদামশায়ের মন ভুলাইল নাতিত্বে প্রবাসবাসের অবকাশ ভরি আতিথ্যে, সে কথাটি কবি গাঁথি রাখে এই ছন্দে সে ॥ সযতনে যবে সূর্যমুখীর অর্ঘ্যটি আনে নিশাস্তে, সেও নিতান্ত মন্দ না । এও ভালো যবে ঘরের কোণের স্বর্গটি মুখরিত করি তানে মানে করে বন্দনা। তবু আরো বেশি ভালো বলি শুভদৃষ্টকে থালাখানি যবে ভরি স্বরচিত পিষ্টকে মোদকলোভিত মুগ্ধ নয়ন নন্দে সে ॥ প্রভাতবেলায় নিরালা নীরব অঙ্গনে দেখেছি তাহারে ছায়া-আলোকের সম্পাতে । দেখেছি মালাটি গাথিছে চামেলি-রঙ্গনে, সাজি সাজাইছে গোলাপে জবায় চম্পাতে । b">