পাতা:প্রায়শ্চিত্ত ১৯২০ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রায়শ্চিত্ত Σ Σ Σ' জীবন-মন দিয়ে ফেরাব। মোহন, এখনই তুই আমাকে নিয়ে যা। দেরি যদি হয়ে থাকে, আর এক মুহূর্ত দেরি করব না। রামমোহন । যুবরাজ কোথায় গেছেন ? বিভা । তিনি খবর নিতে গেছেন। রামমোহন । তিনি ফিরে আমুন-না। বিভা । না মোহন, আর বিলম্ব নয়। তিনি কি খবর পেয়েছেন আমি এসেছি ? দাদা বললেন, তিনি নৌকার ছাত থেকে দেখেছেন ময়ুরপংখি সাজানো হচ্ছে । রামমোহন । ই1, সাজানো হচ্ছে বটে— বিভা ৷ এখনো কি সাজানো শেষ হয় নি ? রামমোহন। ওই ময়ূরপংখির সাজসজ্জায় আগুন লাগুক, আগুন লাগুক ! বিভা । মোহন, তোর মুখে এ কী কথা ! তুই যখন আনতে গেলি আসতে পারি নি বলে এত রাগ করেছিস ! তুইও আমার দুঃখ বুঝতে পারিস নি মোহন ! [মোহন নিরুত্তর এই দেখ, তোর দেওয়া সেই শাখাজোড়া পরে এসেছি— আজকের দিনে তুই আমার উপর রাগ করিস নে। রামমোহন। আমাকে আর দগ্ধ কোরো ন! ! মিথ্যে দিয়ে তোমার কাছে আর কথা চাপা দিতে পারলুম না। মা জননী, এ রাজ্যের লক্ষ্মী তুমি, কিন্তু এ রাজ্যে তোমার আজ আর স্থান নেই। চলে মা, তুমি ফিরে চলো— তোমার এই পাদপদ্মের দাস, এই অধম সন্তান তোমার সঙ্গে স্বাবে । বিভা। মোহন, যা তোর বলবার অাছে সব তুই বল। আমি যে কত ছঃখ ৰইতে পারি তা কি তুই জানিস নে ? রামমোহন। সস্তান যখন ডাকতে গেল তখন কেন এলি নে, তখন কেন