পাতা:প্রায়শ্চিত্ত ১৯২০ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৯ দ্বিতীয় অঙ্ক চন্দ্রদ্বীপ । রাজা রামচন্দ্র রায়ের কক্ষ রামচন্দ্র রমাইভাড় ফর্নাণ্ডিজ ও মন্ত্রী রামচন্দ্র । ( তামাকু টানিয়া ) ওহে রমাই ! রমাই। আজ্ঞা মহারাজ ! রামচন্দ্র । হাঃ হাঃ হাঃ ! মন্ত্রী । হোঃ হেঃ হোঃ ! ফর্মাণ্ডিজ। ( হাততালি দিয়া ) হি: হি: হি: ! হিঃ হিঃ হিঃ ! রামচন্দ্র । খবর কী হে ? রমাই। পরম্পরায় শুনা গেল, সেনাপতিমশাইয়ের ঘরে চোর পড়েছিল। রামচন্দ্র । ( চোখ টিপিয়া ) তার পরে ? রমাই। নিবেদন করি মহারাজ ! ( ফর্মাণ্ডিজ তার কোর্তার বোতাম খুলছেন ও দিচ্ছেন ) আজ দিন তিন-চার ধরে সেনাপতিমশাইয়ের ঘরে রাত্রে চোর আনাগোনা করছিল। সাহেবের ব্রাহ্মণী জানতে পেরে কর্তাকে অনেক ঠেলাঠেলি করেন, কিন্তু কোনোমতেই কর্তার ঘুম ভাঙাতে পারেন নি । রামচন্দ্র । হাঃ হাঃ হাঃ হাঃ ! মন্ত্রী। হোঃ হোঃ হোঃ হোঃ হোঃ ! সেনাপতি। হিঃ হিঃ হিঃ ! রমাই। তার পর দিনের বেলা গৃহিণীর নিগ্রহ আর সইতে না পেরে জোড়হস্তে বললেন, ‘দোহাই তোমার, আজ রাত্রে চোর ধরব।” রাত্রি দুই দণ্ডের সময় গিরি বললেন, ওগো চোর এসেছে। কর্তা বললেন, ‘ওই যা, ঘরে যে আলো জলছে!’ চোরকে ডেকে বললেন, ‘আজ তুই