পাতা:প্রায়শ্চিত্ত ১৯২০ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8있 প্রায়শ্চিত্ত বসন্ত রায়ের প্রবেশ বসন্ত রায়। প্রতাপ ! ( প্রতাপাদিত্য নিরুত্তরে নিদ্রার ভান করিয়া রহিলেন ) বাবা প্রতাপ ! ( প্রতাপাদিত্য নিরুত্তর ) বাবা প্রতাপ, এও কি সম্ভব ? প্রতাপাদিত্য । ( দ্রুত বিছানায় উঠিয়া বসিয়া ) কেন সম্ভব নয় ? বসন্ত রায় । ছেলেমাকুয, অপরিণামদশী, সে কি তোমার ক্রোধের যোগ্য পাত্ৰ ? প্রতাপাদিত্য। ছেলেমানুষ ! আগুনে হাত দিলে হাত পুড়ে যায় এ বোঝবার বয়স তার হয় নি ! ছেলেমানুষ ! কোথাকার একটা লক্ষ্মীছাড়া মূখ ব্রাহ্মণ, নির্বোধদের কাছে দাত দেখিয়ে যে রোজকার করে খায়, তাকে স্ত্রীলোক সাজিয়ে আমার মহিষীর সঙ্গে বিন্দ্রপ করবার জন্তে এনেছে— এতটা বুদ্ধি যার জোগাতে পারে, তার ফল কী হতে পারে সে বুদ্ধিটা আর তার মাথায় জোগাল না! দুঃখ এই বুদ্ধিটা যখনু মাথায় জোগাবে তখন তার মাথাও শরীরে থাকবে না। বসন্ত রায় । আহা, সে ছেলেমানুষ । সে কিছুই বোঝে না । প্রতাপাদিত্য । দেখো পিতৃব্যঠাকুর, যশোরের রায়বংশের কিসে মান-অপমান সে জ্ঞান যদি তোমার থাকবে, তবে কি ওই পাকা মাথার উপর মোগল-বাদশার শিরোপা জড়িয়ে বেড়াতে পার ! তোমার ওই মাথাটা ধূলিতে লুটাবার সাধ ছিল, বিধাতার বিড়ম্বনায় তাতে বাধ৷ পড়ল। এই তোমাকে স্পষ্টই বললুম। খুড়ামহাশয়, এখন আমার নিক্সার সময় | 壘 বসন্ত রায়ের দিকে পিছন করিয়া চোখ বুজিয়া শয়ন বসন্ত রায়। প্রতাপ, আমি সব বুঝেছি— তুমি যখন একবার ছুরি cउांज उथन cन छूग्नि ७कखट्नग्न छेनञ्च *फ़रङहे फ्रांच्च ; अॉमि डांब्र जचका হতে সরে পড়লুম বলে আর-একজন তার লক্ষ্য হয়েছে। ভালো প্রতাপ,