পাতা:প্রায়শ্চিত্ত ১৯২০ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8ぐり

অন্তঃপুরের প্রাঙ্গণ বিভা উদয়াদিত্য রামচন্দ্র রায় ও সুরমা বসন্ত রায়ের প্রবেশ ( বসন্ত রায়কে দেখিয়া মুখে কাপড় ঢাকিয়া বিভা কাদিয়া উঠিল ) বসন্ত রায়। ( উদয়াদিত্যের হাত ধরিয়া ) দাদা, একটা উপায় করে । উদয়াদিত্য। অন্তঃপুরের প্রহরীদের জন্তে আমি ভাবি নে। সদরদরজায় এই প্রহরে যে দু-জন পাহারা দেয় তারাও আমার বশ আছে। কিন্তু দেখলুম বড়ো ফটক বন্ধ, সে তে পার হবার উপায় নেই। বসন্ত রায়। উপায় নেই বললে চলবে কেন ? উপায় যে করতেই হবে। দাদা, চলো । উদয়াদিত্য । যদি-বা ফটক পার হওয়া যায়, এ রাজ্য থেকে পালাবে কী করে ? I রামচন্দ্র। আমার চৌষট্টি দাড়ের ছিপ রয়েছে, একবার তাতে চড়ে বসতে পারলে আমি আর কাউকে জয় করি নে। বসন্ত রায় । সে নৌকো কোথায় আছে ভাই ? উদয়াদিত্য । সে নৌকো আমি রাজবাটীর দক্ষিণ পাশের খালের মধ্যে আনিয়ে রেখেছি। কিন্তু সে পর্যন্ত পৌছোব কী করে ? রামচন্দ্র । রামমোহন কোথায় গেল ? উদয়াদিত্য। সে বন্ধ ফটকের উপর খাচার সিংহের মতো বৃথা ধাক্কা মারছে, তাতে কোনো ফল হবে না ; विङ । षांज cउी भूब्र नञ्च । cऊांशांब्र भक्रिनब्र घरब्रव्र झांमांजांब्र একেবারে নীচেই তো খাল ।