পাতা:প্রায়শ্চিত্ত ১৯২০ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৭১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রায়শ্চিত্ত ግ› মহিষী। কী হয়েছে বিভু ! বিভা। বউদিদির এমন হল কেন মা ! তোমরা তাকে কী করলে মা ! কী খাওয়ালে ! মহিষী। ( উচ্চস্বরে ) ওরে বামী, বামী । শিগগির দৌড়ে যা— ওরে, ওষুধ নিয়ে আয় ! উদয়াদিত্যের প্রবেশ মহিষী। বাবা উদয়, কী হয়েছে বাপ ! উদয়াদিত্য ! স্বরম। বিদায় হয়েছে মা, এবার আমি বিদায় হতে এসেছি-- আর এখানে নয় । মহিষী । ( কপালে করাঘাত করিয়া ) কী সর্বনাশ হল রে, কী সর্বনাশ হল ! উদয়াদিত্য । ( প্রণাম করিয়া ) চললুম ভবে। মহিষী । ( হাত ধরিয়া ) কোথায় যাবি বাপ ! আমাকে মেরে ফেলে দিয়ে ষা ! বিভা । ( পা জড়াইয়া ) কোথায় যাবে দাদা ! আমাকে কার হাতে দিয়ে যাবে ? উদয়াদিত্য । তোকে কার হাতে দিয়ে যাব ! আমি হতভাগা ছাড়া তোর কে আছে ! ওরে বিভl, তুইই আমাকে টেনে রাখলি— নইলে এ পাপ-বাড়িতে আমি এক মুহূর্ত থাকতুম না। বিভা । বুক ফেটে গেল দাদা, বুক ফেটে গেল ! উদয়াদিত্য । দুঃখ করিস নে বিভা, ষে গেছে সে স্বখে গেছে। এ বাড়িতে এসে সেই সোনার লক্ষ্মী এই আজ প্রথম আরাম পেল ।