পাতা:প্রায়শ্চিত্ত ১৯২০ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఏ\e প্রায়শ্চিত্ত উদয়াদিত্য । ( ভীত হইয়া ) কেন ! কী কাজ ? মুক্তিয়ার । আরো এক আদেশ আছে, তা পালন না করে যেতে পারব না । 轟 উদয়াদিত্য। কী আদেশ ? বলছ না কেন ? মুক্তিয়ার। রায়গড়ের রাজার প্রতি মহারাজা প্রাণদণ্ডের আদেশ করেছেন । উদয়াদিত্য । ( চমকিয়া উচ্চস্বরে ) না— করেন নি ! মিথ্যা কথা ! মুক্তিয়ার। আজ্ঞে যুবরাজ, মিথ্যে নয়। আমার কাছে মহারাজের স্বাক্ষরিত পত্র আছে । উদয়াদিত্য । ( সেনাপতির হাত ধরিয়া) মুক্তিয়ার খা, তুমি ভুল বুঝেছ। মহারাজ আদেশ করেছেন যে যদি উদয়াদিত্যকে না পাও ত৷ হলে বসন্ত রায়ের— · আমি যখন আপনি ধরা দিচ্ছি, তখন আর কী ? আমাকে এখনই নিয়ে চলো— এখনই নিয়ে চলো— বন্দী করে নিয়ে চলো, আর দেরি কোরো না । মুক্তিয়ার। যুবরাজ, আমি ভুল বুঝি নি। মহারাজ স্পষ্ট আদেশ করেছেন— উদয়াদিতা। তুমি নিশ্চয় ভুল বুঝেছ, তার অভিপ্রায় এরূপ নয়। জাচ্ছা চলো, যশোরে চলো । আমি মহারাজের সাক্ষাতে তোমাদের বুঝিয়ে দেব। তিনি যদি দ্বিতীয় বার আদেশ করেন সম্পন্ন কোরো। মুক্তিয়ার। ( করজোড়ে ) যুবরাজ, মার্জন করুন। তা পারব না। উদয়াদিত্য। ( অধীরভাবে ) মুক্তিয়ার, মনে আছে আমি এককালে সিংহাসন পাব ? অামার কথা রাখে, আমাকে সন্তুষ্ট করে। [ মুক্তিয়ার খী নীরব (সেনাপতির হাত দৃঢ়ভাবে ধরিয়া ) মুক্তিয়ার খী, বৃদ্ধ নিরপরাক্ষ