পাতা:ফাল্গুনী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ফাল্গুনী ළුණු কোনোমতেই বুঝব না ! কা’র সাধ্য আমাদের বোঝায় ! আমরা কিছু বুঝব না বলেই আজ বেরিয়ে পড়েছি। আজ কেউ যদি আমাদের জোর করে বোঝাতে চায় তাহলে আমরা জোর করে ভুল বুঝব। দাদা। ও শ্লোকটার অর্থ হচ্চে এই যে, বিশ্বের হিত যদি না করি তবে— তবে ? বিশ্ব তাফ ছেড়ে বঁাচে । দাদা। ঐ কথাটাকেই আর একটু স্পষ্ট করে বলেছি— অসংখ্য নক্ষত্র জ্বলে সশঙ্ক নিশীথে । অম্বরে লম্বিত তারা লাগে কা’র হিতে ? শূন্তে কোন পুণ্য আছে আলোক বাটিতে ? মৰ্ত্ত্যে এলে কৰ্ম্মে লাগে মাটিতে হাটিতে । ওহে তবে আমাদের কথাটাকেও আর একটু স্পষ্ট করে বলতে হ’ল দেখচি ! ধর দাদাকে ধর— ওকে আড়কোলা করে নিয়ে চল ওর কোটরে ! দাদা। তোরা অত ব্যস্ত হচ্চিস্থ কেন বলত ? বিশেষ কাজ আছে ? বিশেষ কাজ । অত্যন্ত জরুরি ।