পাতা:ফাল্গুনী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৮০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ফাল্গুনী ریا ک এবার কাজ ছাড়া কথা নেই—চরাচরমিদং সৰ্ব্বং কীৰ্ত্তিৰ্যস্ত স জীবতি । ও আবার কি রকম কথা হ’ল ? ঈশানকে এখনো চৌপদীর ভূত ছাড়েনি । কীৰ্ত্তি ? নদী কি নিজের ফেনাকে গ্রাহ করে ? কীৰ্ত্তি ত আমাদের ফেনা—ছড়াতে ছড়াতে চলে’ যাব । ফিরে তাকাব না । এস ভাই চন্দ্রহাস, এস, তোমার হাসিমুখ যে ! চন্দ্রহাস। বুড়োর রাস্তার সন্ধান পেয়েছি । কা’র কাছ থেকে ? চন্দ্রহাস । এই বাউলের কাছ থেকে । ওকি ? ও যে অন্ধ । চন্দ্রহাস । সেইজন্তে ওকে রাস্ত খুজতে হয় না, ভিতর থেকে দেখতে পায় । কি হে ভাই, ঠিক নিয়ে যেতে পারবে ত ? বাউল। ঠিক নিয়ে যাব । । কেমন করে’ ? বাউল। আমি যে পায়ের শব্দ শুনতে পাই । কান ত আমাদেরও অাছে, কিন্তু— বাউল। আমি যে সব-দিয়ে শুনি—শুধু কান-দিয়ে না।