পাতা:ফাল্গুনী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


నిషి ফাল্গুনী পত্র পাঠিয়েছে। দিগৃদিগন্তে তা’র রটাচ্চে— “আমরা পথের বিচার করিনি—আমরা পাথেয়ের হিসাব রাখিনি—আমরা ছুটে এসেচি, আমরা ফুটে বেরিয়েচি। আমরা যদি ভাবতে বস্তুম তাহ’লে বসন্তের দশা কি হ’ত ?” চন্দ্রহাস তাই বুঝি ক্ষেপে উঠেচে ? বাউল । সে বল্লে— 4. ফুল গাথল অামার জয়ের মালা । বইল প্রাণে দখিন হাওয়া আগুন-জ্বালা ! পিছের বাশি কোণের ঘরে মিছেরে ঐ কেঁদে মরে, মরণ এবার আল্ল আমার বরণ ডালা । যৌবনেরি ঝড় উঠেছে আকাশ পাতালে । নাচের তালের ঝঙ্কারে তা’র আমায় মাতালে। গান