পাতা:ফিরিঙ্গি-বণিক্.djvu/১১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আত্মরক্ষা > @鬱 পরিচয় প্রাপ্ত হইয়া, সূৰ্ব্বপ্রযত্নে তাহাকে বিবৰ্দ্ধিত করিয়া তুলিয়াছিলেন। কোচীন-বন্দরে উপনীত হইয়া, ফিরিঙ্গি-বণিক যে অভিজ্ঞতা লাভ করেন, তাহাই ইউরোপের পক্ষে এসিয়া-বিজয়-কামনা পোষণ করিবার প্রধান প্রলোভন। ফিরিঙ্গি-বণিক এ দেশে আসিয়া স্বদেশদ্রোহীর সহায়তা লাভ করিতে না পারিলে, কেবল বাহুবলে ভারতবাণিজ্যে শক্তি বিস্তার করিতে পারিতেন না । মালাবারের স্বাধীন-বাণিজ্য ফিরিঙ্গি জলদসু্যর অন্যায় উৎপীড়নে এইরূপে বিপৰ্য্যস্ত হইবামাত্র, সমগ্ৰ পাশ্চাত্য-সমাজে আশঙ্কা উদ্রিক্ত হইয়া উঠিল । যাহারা মুসলমান বণিকবর্গের যোগে পারস্যোপসাগরের ও লোহিত সাগরের পুরাতন বাণিজ্যপথে ভারতীয় পণ্যদ্রব্য প্ৰাপ্ত হইয়া, ইউরোপের নানা দেশে বাণিজ্য করিয়া প্রভূত অর্থে পাৰ্জন করিতেন, তঁাহারা আশঙ্কান্বিত হইয়া উঠিলেন। তঁহাদের মধ্যেও আত্মরক্ষার উপায় আবিষ্কারের জন্য উত্তেজনা অনুভূত হইতে লাগিল । একালের ন্যায় সেকালে অল্পক্ষণের মধ্যে সকল কথা জগদ্ব্যাপ্ত হইবার উপায় ছিল না ; সুতরাং সকল কথা জগদ্ব্যাপ্ত হইতে বিলম্ব ঘটতে লাগিল। অবশেষে ভূমধ্যসাগরের ইউরোপীয় বণিগবর্গ যখন মুসলমান বণিগবর্গের সাৰ্ব্বনাশের প্রকৃত কারণ অবগত হইলেন, তখন মুসলমানবাণিজ্য রক্ষা করিবার জন্য আগ্ৰহ উপস্থিত হইল। পর্তুগাল হইতে ভারতীয় পণ্যদ্রব্য সংগ্ৰহ করিয়া ভূমধ্যসাগরতীরের বিবিধ পণ্যবীথিকায় বিক্রয় করিয়া অর্থে পাৰ্জন করা অপেক্ষ মুসলমান বণিকের নিকট পণ্য-সংগ্ৰহ করা সমধিক লাভজনক । সুতরাং মুসলমানগণকে অধিক প্রয়াস স্বীকার করিতে হইল না। ভূমধ্যসাগরের ইউরোপীয় বণিগবর্গের | মধ্যে তৎকালে ভিনিসীয়গণই প্ৰাধান্য লাভ করিয়াছিলেন । তঁাহারা মুসলমানের সহিত একবাক্যে ভারত-বাণিজ্য রক্ষা করিবার জন্য বদ্ধপরিকর হইলেন। এক দল খৃষ্টান মুসলমান-দলনে অগ্রসর, অন্যদল