পাতা:ফিরিঙ্গি-বণিক্.djvu/১৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চদশ পরিচ্ছেদ বাণিজ্য-বিস্তার The main object of the Portuguese in Asia was a monopoly of the Indo-European trade.--Sir. W. Hunter. ভারত-বাণিজ্যে একাধিপত্য লাভ করিবার জন্যই ফিরিঙ্গি-বণিক যুদ্ধ-কলহে লিপ্ত হইয়াছিলেন। যতদিন কেবল জলপথে বাহুবল বিস্তৃত করিয়া সেই উদ্দেশ্যে সিদ্ধ করিবার সম্ভাবনা ছিল, ততদিন স্থলপথে অগ্রসর হইবার প্রয়োজন স্বীকৃত হয় নাই । আলবুকার্কই তাহার প্রথম পথপ্রদর্শক । কিন্তু তঁহাকেও কেবল বাণিজ্য-বিস্তারের অনুরোধেই রাজ্য-বিস্তারের চেষ্টা করিতে হইয়াছিল। বাণিজ্য-চিন্তাই প্ৰধান চিন্তা বলিয়া পরিচিত ছিল। তাহাতে আত্মহারা হইয়া, যখন যাহা করিতে হইয়াছে, ফিরিঙ্গি-বণিক তখনই তাহা অন্নানবিদনে সম্পন্ন করিয়া আসিয়াছেন । তাহাতে ফিরিঙ্গিবণিকের নাম কলঙ্কযুক্ত হইলেও, সেকালের কেহ তাহাতে লজ্জাবোধ করেন নাই । বরং যাহারা এরূপ কাৰ্য্যে প্ৰাণত্যাগ করিতেন, তাহারা স্বদেশের ইতিহাসে অমলুকীৰ্ত্তি লাভ করিতেন। ইতিহাসের কল্যাণে এইরূপে কত নিরাধম দাসু্য-তস্করও মহাবীর বলিয়া পূজা প্রাপ্ত を酸邪iび返! কেবল বাহুবলেই ফিঞ্জিঙ্গি-বণিক আত্মশক্তি বিস্তৃত করিতে পারিতেন না। তাহার সহিত যে শাসন-কৌশল সংযুক্ত হইয়াছিল, তাহাই দিগ্বিজয়লাভের প্রকৃত কারণ। কালিকটের ইতিহাসে তাহার প্রচুর KKEg KK DDD DDSS BDDDBBSDD BDBBSDBBB BDBDBS রক্ষার জন্য প্ৰাণপণে ফিরিঙ্গি-বণিকের গতিরোধের চেষ্টা করিয়াছিলেন।