পাতা:ফিরিঙ্গি-বণিক্.djvu/১৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


88 ফিরিঙ্গি-বণিক সম্ভোগ করিবার আশায়, রাজকাৰ্য্যে অবহেলা করিতে অভ্যস্ত হইয়া উঠিলেন । পর্তুগালের অধিবাসিগণকে ভারতযাত্রায় উৎসাহিত করিবার আশায় পর্তুগালের অধীশ্বর তাহদের জন্য ভারতবর্ষে বিবাহ করিবার সুযোগের সৃষ্টি করিয়াছিলেন। বিবাহিত হইলে, কৰ্ম্মচারিগণ শান্ত শিষ্ট হইয়া, রাজকাৰ্য্যে মনোনিবেশ করিবেন,- এই আশায় রাজা যে ব্যবস্থা করিলেন, তাহাতে বিপরীত ফল সমুৎপন্ন হইতে লাগিল । যাহারা ভারতবর্ষে বিবাহ করিতে লাগিলেন, তঁহারা অন্যায়। উপায়ে অর্থে পার্জনের জন্য অধিক লালায়িত হইয়া উঠিলেন ! অভিনব অজ্ঞাত রাজ্যের আবিষ্কার-কামনা, তাদেশে খৃষ্টধৰ্ম্মপ্রচারের প্রবল উৎসাহ, জলে স্থলে বিজয়গৌরবলাভের উন্মত্ত আকাজক্ষা কালক্ৰমে কথামাত্ৰে পৰ্য্যবসিত হইল। সকলেই অর্থে পাৰ্জনের জন্য লালায়িত হইয়া উঠিলেন । প্ৰথমে ভারতবর্ষের লোক ফিরিঙ্গি কৰ্ম্মচারিগণের গুপ্তবাণিজ্যের সহকারী হইয়া যাহা কিছু উপাৰ্জন করিবার সুবিধা পাইত, কালে তাহাও দূরীভূত হইতে লাগিল। ফিরিঙ্গি রাজকৰ্ম্মচারিগণ রাঙ্গা-প্ৰজাকে তুল্যরূপে প্ৰতারিত করিয়া, আত্মাধিকার প্রতিষ্ঠিত করিয়া লইলেন । ক্রমে রাজকীয় বাণিজ্যের লাভের অংশ অল্প হইতে লাগিল। অবশেষে ক্ষতি হইতেছে দেখিয়া, পর্তুগাল-রাজ যখন কারুণানুসন্ধানে লিপ্ত হইলেন, তখন দেখিলেন,-কৰ্ম্মচারিগণকে শাসন করা অসম্ভব হইয়া উঠিয়াছে ;-মন্ত্রিদল উৎকোচবশে রাজকৰ্ম্মচারিগণের ক্রীতদাস হইয়া উঠিয়াছেন । ইহার প্রতিকারসাধনের জন্য রাজা এক অভিনব উপায়ের উদ্ভাবনা করিতে বাধ্য হইলেন। রাজকোষ হইতে অর্থব্যয় করিয়া ভারতবাণিজ্যের কাৰ্য্য-পরিচালনা না করিয়া স্বদেশের ধনাঢ্যগণের “কোম্পানী” নামক সমিতিকে বাণিজ্যের অধিকারপত্ৰ প্ৰদান করিয়া অর্থলাভের