পাতা:ফিরিঙ্গি-বণিক্.djvu/৮৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ফিরিঙ্গি বণিক ব্যবহার প্রতিপালন করিবার স্বাধীনতা লাভ করিয়াছিলেন। মুসলমানদিগের পক্ষেও তা হাতে কোনরূপ বাধা উপস্থিত হয় নাই । ধৰ্ম্মে ও আচার-ব্যবহারে পৃথক হইয়াও, রাজতন্ত্রে ও বাণিজ্যব্যাপারে এই সকল ভারত প্ৰবাসী বিধাৰ্ম্মিগণ ভারতবাসী বলিয়াই পরিচিত হইয়াছিলেন। যে সকল মুসলমান অতি পুরাকাল হইতে মালাবারে বাস করিতেন, DD BDDD YS DBBBDBD KDDDBSS S YDS KK S DDSYS মোপলা । তঁাহারা ধৰ্ম্মান্ধি ছিলেন না । যাহারা মিশর ও পারস্যদেশ হইতে আগমন করিয়াছিলেন, তঁহারা খৃষ্টবিদ্বেষী হইলেও, হিন্দুবিদ্বেষী ছিলেন না। মালাবারে হিন্দু-মুসলমান তুল্যভাবে বাণিজ্যব্যাপারে প্ৰভুত্ব লাভ করিতেন । বরং অনেক সময়ে মুসলমান বণিকেরাই সমধিক প্ৰভুত্বের পরিচয় প্ৰদান করিতেন। মালাবারের হিন্দু, আধবাসিগণ নবাগত বণিক দলকে সাদরে অভ্যর্থনা করিয়া, লাভের লোভে, তাহাদিগের সহিত চিরপরিচিত আত্মীয়ের ন্যায় ব্যবহার করিতেন । ক্রেতার সংখ্যা অধিক হইলেই বিক্রেতার অধিক লাভের পথ উন্মুক্ত হইতে পারে। এই কারণে, মালাবারের হিন্দু অধিবাসিগণ নুতন ক্রেতাকে সমুচিত সমাদর প্রদর্শন করিতে ক্ৰটি করতেন না । * ফিরিঙ্গি বণিকের পক্ষে মালাবার অপেক্ষা ভারতবর্ষের অন্য কোনও স্থান অধিক অনুকূল হইত বলিয়া বোধ হয় না । অন্যান্য প্রদেশ হইতে সম্পূর্ণরূপে বিচ্ছিন্ন হইয়া, মালাবারের সমুদ্রোপকূল বহুসংখ্যক স্বতন্ত্র রাজ্যে বিভক্ত হইয়া পড়িয়াছিল। একটি ক্ষুদ্র বন্দরমাত্ৰই একটি রাজ্যের শেষ সীমা ! তাহার রাজা কেবল বাণিজ্য শুল্ক সংগ্ৰহ করিয়াই অর্থে পাৰ্জনে ব্যাপৃত ! কেহ কখনও তঁহার শাসন-ক্ষমতা অস্বীকার করিবে, কেহ কখনও বাহুবলে রাজ্য আক্ৰমণ করিবার জন্য সদৰ্পে as They welcomed foreign incrchants, as the greater part of their revenues consisted of dues on Sea-trade.-Sir W. Hunter.