পাতা:ফুলমণি ও করুণার বিবরণ.djvu/২০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২০২ দেখুন-আজি আমি সুঁড়ির দোকান পৰ্যন্ত পয়সা চাহিবার জন্যে তাহার- পিছে ২ গিয়াছিলাম, তথাচ একটি কড়াও পাইলাম না ; বর০ সে অামাকে গালি দিয়া তাড়াইয়া দিল । অামি কহিলাম, কৰুণা, তুমি যদি পারিপাট্য ও মিষ্ট কথাদ্ধারা আপনার বাটীকে রম স্থান করিত, তবে সে অন স্থানে কেন চঞ্চল হইয়া বেড়াইবে ? কিন্তু তুমি তাহাই করিলে সেও তোমাকে ভাল কপে প্রতিপালন করিবে । কৰুণা বলিল, বোধ হয় তাহা কেবল আমাহইতে হুইবে না । কেহ যদি আমাকে শিক্ষা দেয়, তবে কি জানি হইলেও হইতে পারে । পরে আমি কছিলাম, কৰুণা, আমার পরামশে যদি চলিতে পার, তবে আমি তোমাকে শিক্ষা দিই ! তুমি প্রথমে ঈশ্বরের দশ আজ্ঞ মুখস্থ কর, পরে সে সকল আজ্ঞা পালন করিতে যত্নবর্তী হও, বিশেষতঃ বিশ্রামবারকে পবিত্ৰ ৰূপে মানিয়া প্রভুর গীর্জা ঘরে যাও । আহা কৰুণ ! তুমি যদি এত দিন গীর্জায় যাইত, তবে এখন ধৰ্ম্মের বিষয়ে এমত অজ্ঞান হইয়া থাকিত না। কৰুণা বলিল, মেম সাহেব, আমার একখানিও ভাল কাপড় নাই, এই জন্যে গীর্জায়