পাতা:ফুলমণি ও করুণার বিবরণ.djvu/৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৩২ দ্বিতীয় অষ্ঠায় । পূর্ব অধ্যায়ের লিখিত ঘটনার দশ বার দিন পরে আমি পুনর্বার ফুলমণির গৃহে যাইতে বাসন করিলাম । সে দিবস শনিবার, অতএব মনে ভাবিলাম, অদ্য যদি যাই, তবে বোধ হয় আমি ফুলমণির ছেল্যাদের দেখা পাইব; কারণ ফুলমণি আমাকে বলিয়াছিল যে শনিবারে ছেলার বেলা থাকিতে বাটতে আইসে । ইহা স্মরণ করিয়া আমি আয়াকে ও চাপরাসিকে সঙ্গে করিয়া চলিলাম । চাপরাসির হাতে একটি টবে অতি সুন্দর লালবর্ণ বিলাতি ফুলগাচ ছিল; তাছা চিন গোলাপ চারার পরিবর্ভে ফুলমণিকে দিতে মানস করিলাম, কেননা সে ফুলসকলকে কেমন ভাল বাসে এবণ তাহাদ্বারা কিৰূপ উত্তম ২ উপদেশ প্রাপ্ত হয়, ইহা দেখিয়া আমি বড় সস্তুষ্ট হইয়াছিলাম । , ইহা আশ্চর্যের বিষয় বটে, যে কোন২ খ্ৰীষ্টিয়ান লোক পৃথিবীর সৌন্দর্য দেখিয়াও তদ্বার সৃষ্টিকৰ্ত্তার বিষয়ে কিছু শিক্ষা করে না, এবং তাহার হস্তকৃত কার্যের সহিত পারমাথিক বিষয়ের কিরূপ তুলনা হয়, তাহাও বুঝিতে পারে না । এই কথা দেশস্থ স্ত্রীলোকদের প্রতি বিশেষ