পাতা:বঙ্কিমচন্দ্রের উপন্যাস গ্রন্থাবলী (তৃতীয় ভাগ).djvu/৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8ο বঙ্কিমচন্দ্রের গ্রন্থাবলী জীবানন্দ উচ্চহাস্ত করিলেন ; বলিলেন, “এ নুতন রঙ্গ বটে। তার পর নবীনানন, এখানে কি মনে ক'রে এসেছ ?” শাস্তি বলিল, “ভদ্রলোকের মধ্যে এই রীতি প্রচলিত আছে যে, প্রথম আলাপে ‘আপনি ‘মহাশয়" ইত্যাদি সম্বোধন করিতে হয়। আমিও আপনাকে অসন্মান করিয়া কথা কহিতেছি না—তবে আপনি কেন আমাকে ‘তুমি তুমি’ করিতেছেন ?” 'ষে আঞ্জে' বলিয়া জীবানন্দ গলায় কাপড় দিয়া ষোড়হাত করিয়া বলিলেন, “এক্ষণে বিনীতভাবে ভূত্যের নিবেদন, কি জন্য ভরুইপুর হইতে এ দীনভবনে মহাশয়ের শুভাগমন হইয়াছে, আজ্ঞা করুন।" শাস্তি অতি গম্ভীরভাবে বলিল, “বঙ্গেরও প্রয়ো জন দেখিতেছি না । ভরইপুর আমি চিনি না । আমি সস্তানধৰ্ম্ম গ্রহণ করিতে আসিয়া, আজ দীক্ষিত হইয়াছি।” জীবী । অ৷ সৰ্ব্বনাশ ! সত্য ন। কি ? শা। সৰ্ব্বনাশ কেন ? আপনিও দীক্ষিত। জীব । তুমি যে স্ত্রীলোক । শ। সে কি ? এমন কথা কোথা পাইলেন ? জীব। আমার বিশ্বাস ছিল, আমার ব্রাহ্মণী - স্ত্রীজাতীয় । শা। ব্রাহ্মণী ? অাছে না কি ? জীব| ছিল ত জানি । শা। আপনার বিশ্বাস যে, আমি আপনার ব্ৰাহ্মণী ? জীবানন আবার ষোড়হাত করিয়া গলায় কাপড় দিয়া অতি বিনীতভাবে বলিলেন, “আজ্ঞা হুঁ৷ মহাশয় ।" শ। যদি এমন হাসির কথা আপনার মনে উদয় হইয়া থাকে, তবে আপনার কৰ্ত্তব্য কি, বলুন দেখি ? জীব । আপনার গাত্রাবরণখানি বলপুৰ্ব্বক গ্ৰহণাস্তর আধরমুধ পান । শী। এ আপনার দুষ্টবুদ্ধি অথব| গঞ্জিকার প্রতি অসাধারণ ভক্তির পরিচয় মাত্র । আপনি দীক্ষাকালে শপথ করিয়াছেন যে, স্ত্রীলোকের সঙ্গে একাসনে উপবেশন করিবেন না। যদি আমাকে স্ত্রীলোক বলিয়া আপনার বিশ্বাস হইয় থাকে—এমন সপে রঞ্জুশ্রম অনেকেরই হয়-—তবে আপনার উচিত যে, পৃথক্ আসনে উপবেশন করেন । আমার সঙ্গে আপনার আলাপও অকৰ্ত্তব্য । এই বলিয়া শান্তি পুনরপি পুস্তকে মন দিল। পরাস্ত হইয়া জীবানন্দ পৃথক্ শয্যা রচনা করিয়া শয়ন করিলেন ।