পাতা:বঙ্কিমচন্দ্রের উপন্যাস গ্রন্থাবলী (তৃতীয় ভাগ).djvu/৯৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Հ8 ভাসাইয়া রহিয়াছে! সরোবরের প্রান্তে যেন এক সুবর্ণনিৰ্ম্মিত রাজহংস বেড়াইতেছে, তীরে একটা শ্বেত শূকর বেড়াইতেছে। রাজহংস দেখিয় তাহাকে ধরিবার জন্য শৈবলিনী যেন উৎসুক হইয়াছে ; কিন্তু রাজহংস তাহার দিক হইতে মুখ ফিরাইয়া চলিয়। যাইতেছে। শূকর শৈবলিনী-পদ্মকে ধরিবার জন্য ফিরিয়া বেড়াইতেছে, রাজহংসের মুখ দেখা যাইতেছে না, কিন্তু শূকরের মুখ দেখিয়া বোধ হইতেছে সেন ফষ্টরের মুখের মত। শৈবলিনী রাজহ-সকে ধরিতে যাইতে চায়, কিন্তু চরণ মৃণাল হইয়া জলতলে বদ্ধ হইয়াছে,— তাহার গতিশক্তি রহিত । এদিকে শূকর বলিতেছে, “আমার কাছে আইস, আমি হুঁসি ধরিয়া দিব ।" প্রথম বন্দুকের শব্দে শৈবলিনীর নিদা ভাঙ্গিয়া গেল —তাহার পর প্রহরীর জলে পড়িবার শব্দ শুনিল । অসম্পূর্ণ-ভয় নিদ্রার আবেশে কিছুকাল বুঝিতে পারিল না। সেই রাজহংস—সেই শূকর মনে পড়িতে লাগিল। যখন আবার বন্দুকের শব্দ হইল এবং বড় গণ্ডগোল হইয়া উঠিল, তখন তাহার সম্প্র নিদ্রাভঙ্গ হুইল । বাহিরের কামরায় আসিয়া দ্বার হইতে এক বার দেখিল—কিছু বুঝিতে পারিল না : আবার ভিতরে আসিল । ভিতরে আলো জ্বলিতেছিল । পাৰ্ব্বতীও উঠিয়াছিল । শৈবলিনী পৰ্ব্বতীকে জিজ্ঞাস। করিল, “কি হইতেছে, কিছু বুঝিতে পরিচ্ছে ?" পা। কিছু ন! ! লোকের কথায় বোধ হইতেছে, নৌকায় ডাকাত পড়িয়াছে—সাহেবকে মারিয়া ফেলিয়াছে—আমাদেরই পাপের ফল ! শৈ । সাহেবকে মারিয়াছে, তাতে তামাদের পাপের ফল কি ? সাহেবরই পাপের ফল । পা। ডাকাত পড়িয়াছে – বিপদ আমাদেরই ! শৈ । কি বিপদ ? এক ডাকাতের সঙ্গে ছিলাম, না হয়, আবার ডাকতের সঙ্গে যাইব । সদি গোর। ডাকাতের হাত এড়াইয়া কাল ডাকাতের হাতে পড়ি, তবে মন্দ কি ? এই বলিয়৷ শৈবলিনী ক্ষুদ্র মস্তক হইতে পৃষ্ঠোপরি বিলম্বিত বেণী আন্দেলিত করিয়া একটু হাসিয়া, ক্ষুদ্র পালঙ্কের উপর গিয়া বসিল । পাৰ্ব্বতী বলিল, “এ সময়ে তোমার হাসি আমার সহ্য হয় ন৷ ” শৈবলিনী বলিল, “অসহ্য হয়, গঙ্গায় জল আছে, ডুবিয়া মর, অামার হাসির সময় উপস্থিত গুইরাছে, আমি হাসিব । এক জন ডাকাতকে ডাকিয় আন না, একটু জিজ্ঞাসাপড়া করি।” পাৰ্ব্বতী রাগ করিয়া বলিল, “ডাকিতে হইবে না, তাহার। আপনারাই আসিবে ” কিন্তু চারিদণ্ড কাল পর্য্যন্ত অতিবাহিত হুইল, ডাকাত কেহ আসিল না । শৈবলিনী তখন দুঃখিত হইয়া বলিল, “আমাদের কি কপাল ! ডাকাতেরাও ডাকিয়া জিজ্ঞাসা করে না।” পাৰ্ব্বতী কঁাপিতেছিল। অনেকক্ষণ পরে নৌক আসিয়া এক চরে লাগিল । নৌক৷ সেইখানে কিছুক্ষণ লাগিয়া রহিল। পরে তথায় কয়েক জন লাঠিয়াল এক শিবিক লইয়া উপস্থিত হইল । অগ্ৰে অগ্রে রামচরণ । শিবিক, বাহকের চরের উপর রাখিল । রামচরণ বজরায় উঠিয়া প্রভাপের কাছে গেল। পরে প্রতাপের উপদেশ পাইয়। সে কামরার ভিতর প্রবেশ করিল। প্রথমে সে পাৰ্ব্বতীর মুখপ্রতি চাহিয়া শেষে শৈবলিনীকে দেখিল । শৈবলিনাকে বলিল, “আপনি নামুন " শৈবলিন জিজ্ঞস করিলেন, “তুমি কে ?— কোথায় মাষ্টব ?” রামচরণ বলিল, “আমি আপনার চাকর । কোন চিন্ত নষ্ট, আমার সঙ্গে তাস্থন । সাহেব মরিয়াছে " GBBBB BSBB KDKKB BBBS BBBBBB সঙ্গে আসিল । রামারণের সঙ্গে সঙ্গে নীক! ইষ্টতে নামিল। পাৰ্ব্বতী সঙ্গে সাইন্তে'ভুল—রামচরণ তাহাকে নিসেধ করিল পাপৰ ঠী ভয়ে নৌকার BBBB BBB S BSBSBB BBBSBBBSB BBBBB KBB BBBS BBBBS BBSBBS BSBBSBBS gBBB BBBS SBBBS BB KgBBB DSB BBBS তখন ৪ দলনী এবং কুলসমৃ সেই গৃহে বাস করিতেছিল । ততদিগের নিদ্রাভঙ্গ শুইবে বলিয়, সেখানে ভঙ্গিার ছিল, সেখানে শৈবলিনকে লষ্টয়া গেল মা, উপরে লইয়। গিয়। ত্ৰাত:ক বিশাম করিতে বলিয়। রামচরণ আলে। জ্ঞালিয়। ব:থিয় শৈবলিনীকে প্রণাম করির দ্বার রুদ্ধ করির বিদ্যু হুইল । শৈবলিনী জিজ্ঞাস করিলেন, “এ কাহার বাড়ী?” রামচরণ সে কথ। ‘কালে তুলিল ন! । রামচরণ আপনার বৃদ্ধি খরচ করিয়৷ শৈবলিণীকে প্রতাপের গুহে অনি! তুলিল প্রতাপের সেরূপ অনুমতি ছিল না । তিনি রামচরণকে বলিয়া দিয়াছিলেন, পল্লী জগৎশেঠের গৃহে লইয়। যাইও । রামচরণ পথে ভাবিল—“এ রাত্রে জগৎশেঠের ফটক খোল পাইব কি না ? দ্বারবানের প্রবেশ করিতে দিবে কি না ? জিজ্ঞাসিলে কি পরিচয় দিব ? পরিচয় দিয়৷ কি আমি পুনে বলিয়া ধরা পড়িব ? সে সকলে কাজ নাই ; এখন বাসায় যাওয়াই ভাল !" এই ভাবিয়া সে পান্ধী বাসায় আনিল ।