পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/১৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ऋचखांबांडूवर्डिंडाँ। * গণকেনিরস্ত করণোদেশে ঈশ্বরাদেশের | মিল কর্তৃক উত্তাবিত বলিয়া প্রসিদ্ধ। वक्रकर्णब, बां३, २२१a j নিগুঢ় মৰ্ম্ম প্রচার করিতেছেন। তাহার বলেন যে, আমাদিগের ধৰ্ম্মবিধিগুলি সৰ্ব্বতোভাবে যুক্তিসঙ্গত। তবে যেন যুক্তিসঙ্গত না হইলে ঈশ্বরাদেশ অবহেলা করাতে দোষ নাই। একথার বিচার করা আমাদিগের অভিপ্রেত নহে ; কিন্তু ইহারদ্বারা স্পষ্ট উপলব্ধ হইতেছে যে, এইক্ষণ সকল কাৰ্য্য ও নিয়মের যুক্তি অবধারণ করা"অত্যাবশ্যক হইয়াছে। আবার র্যাহারা কোন ধৰ্ম্মকেই ঈশ্বরাদিষ্ট বলিয়া গণ্য করেন না, তাহাদিগের কৰ্বব্যাকৰ্ত্তব্যের নিয়ম নির্দেশাৰ্থ কতক গুলি মূল কথা স্থির করা অত্যাবশ্যক। সেই গুলি সৰ্ব্ববাদীসম্মত হইলে যিনি যেরূপ বিশেষ বিধি প্রতিপালন করুন, মৌলিক কথার সহিত সম্মত হইলেই তাহার প্রতি কেহ আপত্তি করিতে পারিবুেন না। এই প্রকার সর্ববাদীসম্মত কতকগুলি মৌলিক নিয়ম স্থির করা যে অতীব কঠিন তাহ বলা বাহুল্য। ফলতঃ অস্থাপি এমত একটা নিয়মও স্থির হয় নাই যে, তদনুসারে সকলেই স্ব২ কাৰ্য্যের কৰ্ত্তব্যাকৰ্ত্তব্যতা নির্ণয় করিতে ইচ্ছা কৱিৰেক। " - উপস্থিত প্রস্তাবে এইরূপ একটী মৌলিক নিয়মের আলোচনা করিতে সংকল্প कब्र निष्ठारहन देश बैदूल जम छेहरूँ প্রকাশ করিতে. পারিব এত দূর সাহস । হয় না, তবে যৎকিঞ্চিৎ যাহা লিপিবদ্ধ করা গেল, তাহা মূল গ্রন্থের অনুরূপ | বলিয়া গ্রাহ হইলেই আমাদিগের শ্রম | সার্থক হইবেক । মিল বলেন যে জন সমাজে কোন ব্য- | ক্তির স্বেচ্ছাচার নিবারণের প্রস্তাব হইলে । কেবল এই বিচার করা উচিত যে, কথিত | আচরণের দ্বারা অন্য কোন ব্যক্তির ক্ষতি | Lহয় কি না। ক্ষতি হইলে তাহ নিবা | রণ করা আবশ্যক। নতুবা তাহার নি- | জের স্থখস্বাচ্ছন্দ্য বা পুণ্য বৃদ্ধির উদ্দেশে দণ্ডবিধির দ্বারাই হউক, বা গুরুতর | লোক নিন্দার দ্বারাই হউক, তাহার | স্বেচ্ছাচার প্রতিবিধান করিবার অধি | কার অন্য ব্যক্তি মাত্রেরই নাই । মিল আপন মত সমর্থন জন্য যে সক- I ল কথা বলিয়াছেন, তাহার সংক্ষিপ্ত মৰ্ম্ম এবং স্থল বিশেষে এতদ্দেশের পুরাবৃত্ত ও ব্যবহার প্রথালী সহযোগে প্রতিপাদন পূর্বক প্রকাশ করা যাইতেছে । সচরাচর সকলেই স্বীকার করিয়া থা- | কেন যে বুদ্ধিই মমুস্থ্যের পরম পদার্থ; যে ব্যক্তি বুদ্ধি চালনা করে •না—কেৱল অন্যের অমুকরণ করিয়াই কাৰ্য করে, । তাহাকে ভাবতেই হেয় জ্ঞান করিয়া থাকেন। সেই বুদ্ধি প্রত্যেকেরই নিজের ।