পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/২৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


वक्रक्र्थव ન કરવામાં ! } ote প্লোজমীদের একটি কথা মনে পড়ি । সকের পুরাতন রোগ চিকিৎসায় বৈত য়াছে আমরা সেইটি এই স্থানে বলিয়া পাঠককে হাসিতে বা কাদিতে অনুরোধ করি না। এক দিন, দীনবন্ধু বাবুর লীলাবতী নাটকের কথা হইতেছিল। বাঙ্গালি, যিনি পিরান গায়ে দেন, তিনিই সমালোচক। এক জন বিজ্ঞ সমালোচক এক জন আগন্তুককে লক্ষ্য করিয়া বলিলেন, “এই খনার স্ত্রী লীলাবতী বড় (Mathematician) făcea ; Pri বাবুর্তরি বিষয়ে নাটক লিখিয়াছেন। এই পাঁচটা মিষ্টি কথা বাৰ্ত্ত আর কি ?” আমরা উপস্থিত ছিলাম ; হাসি কঁাদি নাই। তাহাতেই কাহাকেও হাসিতে বা কাদিতে বলি না। হা দীনবন্ধো । ভাস্করাচাৰ্য্য ! লীলাবতি । নাটক । কাব্য! সত্য ! সমালোচনা ! তোমাদের এই দশা হইল । কলঙ্কিনী লীলাবতী যদি না থাকিত, তাহা হইলে আমাদিগকে কখনই লজ্জাকর সমালোচন শুনিতে হইত না । আয়ুৰ্ব্বেদ, রসায়ন, উস্তিদূতত্ত্ব। এগুলি মনুষ্যের কেবল শরীরধারণ পক্ষে বিশেষ প্রয়োজনীয় ও প্রাচীন ভারতে এগুলির বিশেষ সমাদর ছিল। অমুঅক্টোদি পত্রে তার প্রচুর প্রমাণ পাওয়া যায়। অন্য প্রমাণ অনুসন্ধানের প্রয়োজন কি, এত ষে অধঃপাতে গিয়াছে দিগের সমকক্ষ হইতে পারিতেছেন না। তৈল চিকিৎসা যে অতি আশ্চৰ্য্য পদ্ধতি তাহাও স্বীকার করিতে হয়। সামান্ত বণিকবিপণিতে এক পাত অষ্টাদশ মূল পাচনে দেখিবেন, কত বিভিন্ন ধৰ্ম্মের বিভিন্ন প্রদেশের মূল একত্রিত থাকে। কোন বিশেষ রোগের প্রতীকীর জন্য সেই গুলি একত্রিত করিতে প্রাচীন পণ্ডিতগণের কত অধ্যবসায় এবং কত সময় লাগিয়াছে। কিন্তু যেরূপ তাড়িত গতিতে সমস্ত লোপ পাইতেছে; বোধ হয়, এই রূপে চলিতে পারে আর কিছু দিন কপিরাজ ও কবিরাজ শব্দে কেবল বর্ণগতও নয়, অর্থগতও অনেক সাদৃশ্য হইবে । o সঙ্গীত। সঙ্গীতের ক্রিয়াসিদ্ধের উৎকর্ষ দেখিয়াও সূক্ষারূপে আলোচনা করিয়া আমাদের বিশ্বাস যে, ভারতবর্ষে মুসলমানদিগের সময়ে অতি উন্নত সঙ্গীতবিজ্ঞান ছিল । সোমেশ্বর কণামাঘ ও হনুমত প্রভৃড়ি মতভেদ দেখিলে বিজ্ঞানের অস্তিত্ব সম্বন্ধে সন্দেছ হয় বটে, কিন্তু ঐরাগে ও ভৈরৰে কেইই নাই কেন ?" বিজ্ঞান তৎসমুদায়কে অলঙ্খনীয়। বৈজ্ঞানিক ভিন্ন ঐ প্রশ্নের