পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


متسد . ૨ ૨ —£ —স্ত্রীলোকের ক্রোধ একবারে হ্রাস প্রাপ্ত হয় না । কেবল নব-বারি-সমাগম-প্রফুল্ল ভেকেরা উৎসব করিতেছিল, ঝিল্লীরব মনোযোগ পূৰ্ব্বক লক্ষ্য করিলে শুনা যায়, রাবণের চিতার স্তায় অশ্রাস্তৱব করিতেছে, কিন্তু বিশেষ মনোযোগ না করিলে লক্ষ্য হয় না । শব্দের মধ্যে বৃক্ষাগ্র হইতে বৃক্ষপত্রের উপর বর্ষাবশিষ্ট বারিবিন্দুর পতনশব্দ, বৃক্ষতলস্থ বষর্ণজলে পত্রচু্যত জলবিন্দুর পতনশব্দ, পথিস্থ অনিঃস্বত জলে শৃগালের পদসঞ্চারশদ, কদাচিৎ বৃক্ষারূঢ় পক্ষীর আর্দ্র পক্ষের জলমোচনার্থ পক্ষবিধুননশব্দ । মধ্যে মধ্যে শমিতপ্রায় বায়ুর ক্ষণিক গর্জন, তৎসঙ্গে বৃক্ষপত্রচু্যত বারিবিন্দুসকলের এককালীন পতনশব্দ । ক্রমে নগেন্দ্র দূরে একটা আলো দেখিতে পাইলেন। জলপ্লাবিত ভূমি অতিক্রম করিয়া বৃক্ষচ্যুত-বারি কর্তৃক সিক্ত হইয়া, বৃক্ষতলস্থ শৃগালের ভীতিবিধান করিয়া, নগেন্দ্র সেই আলোকাভিমুখে চলিলেন। বহু কষ্ট্রে আলোক সন্নিধি উপস্থিত হইলেন। দেখিলেন, এক ইষ্টক নিৰ্ম্মিত প্রাচীন বাসগৃহ হইতে আলো নির্গত হইতেছে। গৃহের দ্বার মুক্ত। নগেন্দ্র ভৃত্যকে বাহিরে রাখিয়া গৃহমধ্যে প্রবেশ করিলেন। দেখিলেন, গৃহের অবস্থা ভয়ানক ! • দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ ।. দীপনির্বাণ । গৃহটী নিতান্ত সামান্য । কিন্তু এখন তাহাতে সম্পদলক্ষণ কিছুই নাই। প্রকোষ্ঠ AMSMSMSMSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSSAAAA বিষবৃক্ষ। אראג בfa,tsידזיז) সকল ভগ্ন, মলিন, মনুষ্যসমাগম-চিহ্ন-বিরহিত । কেবল পেচক, মুষিক ও নানাবিধ কীট পতঙ্গাদি সমাকীর্ণ। একটা মাত্র কক্ষে । আলে জলিতেছিল । সেই কক্ষমধ্যে নগেজ, প্রবেশ করিলেন। " দেখিলেন, কক্ষমধ্যে মক্ষা-জীবনোপযোগী হুই একটা সামগ্ৰী আছে মাত্র, কিন্তু সে সকল সামগ্রীই দারিদ্র্যব্যঞ্জক। ] দুই একটা হাড়ি—একটা ভাঙ্গ উনান— তিন চারি খানি তৈজস-ইছাই কক্ষীলঙ্কার। দেওয়ালে কালি, কোণে ঝুল ; চারি দিকে আরস্থল, মাকড়সা, টিকটিকি, ইন্দুর বেড়াইতেছে। এক ছিন্ন শয্যায় একজন প্রাচীন শয়ন করিয়া আছেন । দেখিয়া বোধ হয়, তাহার অস্তিমকাল উপস্থিত। চক্ষু স্নান, নিশ্বাস প্রখর, ওষ্ঠ কম্পিত । শয্যাপার্শ্বে গৃহচ্যুত ইষ্টক খণ্ডের উপর একটা মৃণায় প্রদীপ, তাহাতে তৈলাভাব ; শয্যোপরিস্থিত নরদেহও তাই। আর শয্যাপার্থে আরও এক প্রদীপ ছিল,—এক অনিন্দিত গোরকাস্তি স্নিগ্ধজ্যোতিৰ্ম্ময়-রূপিণী বালিকা । তৈলহীন প্রদীপের জ্যোতি: অপ্রখর বলিয়াই হউক, অথবা গৃহবাসী দুই জন আগুভাৰী বিরহের চিন্তায় প্রগাঢ়তর বিমনা থাকার কারণেই হউক, প্রবেশ কালে, নগেজকে | কেহই দেখিল না। তখন নগেজ দ্বারদেশে দাড়াইয় .সেই প্রাচীনের মুখনিৰ্গত চরমকালিক দুঃখের কথা সকল শুনিতে লাগিলেন। এই দুই জন, প্রাচীন এবং বালিকা, এই বহলোক-পূর্ণ লোকালয়ে নিঃসহায়। একদিন ইহাদিগের সম্পদ ছিল, मार च, शन गने, अशी ओर ने