পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


| ૭s ... • সঙ্গীত । হইয়া চারিদিগে মওলাকারে ধাৰিত হয়, সেই রূপ কম্পিত বায়ুর তরঙ্গ চারিদিকে ! ধাবিত হইতে থাকে। সেই সকল তরঙ্গ | কর্ণমধ্যে প্রবিষ্ট হয় ; কর্ণমধ্যে একখানি স্বল্প ! চৰ্ম্ম আছে। ঐ সকল বায়বীয় তরঙ্গ পরস্পর সেই চর্শ্বোপরি প্রহত হয় ; পরে তৎসংলগ্ন অস্থি প্রভৃতি দ্বারা শ্রাবণ ধমনীতে নীত হইয়া মস্তিষ্ক মধ্যে প্রবিষ্ট হয় । তাহাতে আমরা | শব্দাকুভব করি । | অতএব বাস্থ্য প্রকম্প শৰ জ্ঞানের মুখ্য কারণ । দার্শনিকের স্থির করিয়াছেন যে, যে শস্বে প্রতি সেকণ্ডে e৮,••• বার বায়ুর প্রকম্প হয়, তাহ আমরা শুনিতে পাই, তাহার অধিক হইলে শুনিতে পাই না। মহুর | সাবতি অবধারিত করিয়াছেন যে, প্রতি সেকেণ্ডে ১৪ বারের নুনমংখ্যক প্রকম্প যে শবে, সে শস্ব আমরা শুনিতে পাই না। এই প্রকম্পের সমান মাত্রা স্বরের কারণ। দুইটি প্রকম্পের মধ্যে যে সময় গত হয়, তাঙ্গ যদি সকল বারে সমান থাকে, তাহ হইলেই | জর জন্মে। গীতে তাল যেরূপ, মাত্রার সমতা মাত্র-শস্ত্র প্রকম্পে সেইরূপ থাকিলেই হয় জন্মে ; যে শৰে সেই সমতা নাই, তাহ মুর রূপে পরিণত হয় মা । সে শঙ্গ "বেস্থর” 1অর্থাৎ গণ্ডগোল মাত্র। ভালই সঙ্গীতের | সার। এই স্বরেব একতা বা बङ्ढ़ॆ श्रौड । বাহ্য নিসর্গ তত্ত্বে সঙ্গীত এই রূপ, কিন্তু তাহাতে মানসিক স্বথ জন্মে কেন ? তাহ বুলি । সারে কিছুই সম্পূর্ণ উৎকৃষ্ট হয় না। সকলেরই উৎকর্ষের কোন অংশে অভাব, বা কোন দোষ আছে। কিন্তু নির্দোষ উৎকর্ষ আমরা মনে কল্পনা করিয়া হইতে পারি-- এবং এক বার মনোমধ্যে তাহার প্রতিমা স্থাপিত করিতে পরিবুে তাহার প্রতিমূৰ্ত্তির স্বজন করিতে পারি। যথা, সংসারে কখন নির্দোষ সুন্দর মনুষ্য পাওয়া যায় না ; যত মনুষ্য দেখি, সকলেরই কোন না কোন দোষ আছে ; কিন্তু সে সকল দোষ ত্যাগ করিয়া, আমরা সুন্দর কাত্তি মাত্রেরই সৌন্দর্য্য মনে রাখিয়া, এক নির্দোষ মূৰ্ত্তির কল্পনা করিতে পারি এবং তাহা মনে কল্পনা করিয়া । নির্দোষ প্রতিম প্রস্তরে গঠিত করা যায় । এই রূপ উৎকর্ষের চরম সৃষ্টিই কাব্য চিত্রাদিয় উদ্দেশ্য । যেমন সকল বস্তুরই উৎকর্ধের একটা ! চরম সীমা আছে, শব্দেরও অরূপ। বালকের কথা মিষ্ট লাগে ; যুবতীর কণ্ঠস্বর মুগ্ধকর ; বক্তার স্বরভঙ্গাই বক্তৃতার সার । ৰকৃত শুনিয়া যত ভাল লাগে, পাঠ করিয়া তত ভাল লাগে না, কেননা সে স্বরভঙ্গা নাই। ৰে কথা সহজে বলিলে তাহাতে কোন রস পাওয়া बांध्र मा, ब्रनिटकब्र क%उन्नैौहउ ठांशं जठाढ সরস হয়। কখন কখন একটি মাত্র সামান্ত কথায়, এত শোক, এত প্রেম, বা এত্ত আহলাদ ব্যক্ত হইতে শুনা গিয়াছে যে, শোক ब ceथम बां श्रांलांग बीमाहेबांब्र “जछ ब्रल्लेिख মুদীর্ঘ বক্তৃতায় তাহাঙ্গ শতাংশ পাওয়া যায় না । কিলে এরূপ হয় ? কণ্ঠতীয় গুণে । অৰশ্য একটা চরমোৎকর্ষ আছে । সে চরমোৎকর্ষ অত্যন্ত স্বখকর হইবে, তাহাতে !