পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৪১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


s?? কারকের সহিত আলাপ বন্ধ অথবা তাহার সঙ্গ ত্যাগ করিতে পারেন, সেই চেষ্টা করেন । ইহাতে আশ্চর্য্যের বিষয় কিছুই নাই। বহুকাল হইতে এদেশে হিন্দু ধৰ্ম্মের প্রভাব সম্পূর্ণ অব্যাহত থা কাতে, তৎপ্রতি লোকের অচলা ভক্তি : এবং দৃঢ় বিশ্বাস জন্মিয়ছিল ; সকলেই । নির্বিবরোধে তদনুযায়ী আচার ব্যবহার পরিপালন করিয়া কিন্তু কালক্রমে দেশমধ্যে বিদেশীয় ভিন্ন ভিন্ন জাতির সমাগম, এবং তন্নিবন্ধন তাহাদের ভাষা শিক্ষা ও শাস্ত্রাদি অধ্য । য়ন করিবার উত্তম স্থযোগ হওয়াতে অনেকে তাহাদের প্রত্যেকের অবলম্বিত ধৰ্ম্মের সহিত আপন আপন ধর্মের তুলনা করিতে সক্ষম হইয়া যাহার যে দোষ ও যে গুন, তাহা বুঝতে পারিয়া- : ছেন । এবং কেহ২ অন্য ধৰ্ম্মের সারবত্ত বুঝিতে পারয়, তাহ অবলম্বন করিয়াছেন, কেহ কেহ বা হিন্দুধর্মের সারাংশ : নির্বাচন করিয়া লইয়াছেন। প্রথমোক্ত । দলের কোন কথাই নাই ; তাহার। ধৰ্ম্মোন্মত্ত হইয়া অকুতোভয়ে সমাজ বন্ধন এক বারেহ ছেদন করিতে সমর্থ হুইয়াছেন। কিন্তু শেষোক্ত সম্প্রদায়ের তজপ ঘাটতে পারে নাই । যদিও অধিকাংশ লোকে এই সম্প্রদায়ের অনুগামী তথাপি তন্মধ্যে অনেকেই হিন্দু সমাজের সহিত একবারে সম্পর্ক ধৰ্ম্মনীতি । আসিতেছিলেন । o ཁཏུ་“ན་ অস্বীকার করিতে পারেন নাই। র্তাহ:দের প্রকৃত মড় যাহাই হউক, একাশ্বে হিন্দুর ন্যায় সকল আচার ব্যবহার মাস্থ্য করিঘা চলিতে হইতেছে। দৃঢ়তা নাই, এই মাত্র বিশেষ। অনেকে আবার নানা ধৰ্ম্মেরমৰ্ম্ম অবগত হইয়া, কোন ধৰ্ম্মে যে মতি স্থির করিবেন, অদ্যপি বুঝিয়া উঠিতে পারেন নাই। ধৰ্ম্ম সম্বন্ধে দেশের আধুনিক অবস্থা এই রূপ। কিন্তু কোন ধৰ্ম্ম বিশেষের আলোচনা করা আমাদের উদেশ্য নহে যিমি যে ধৰ্ম্মাবলম্বী হউন, ধৰ্ম্মনীতির প্রতি সকলেরই সমান শ্রদ্ধা থাকা উচিত। ধৰ্ম্মনীতি ধৰ্ম্মের সাধারণ পদার্থ, সকল ধৰ্ম্মেই ইহার উপদেশ দিয়া থাকে । ধৰ্ম্মে মতভেদ অপমহায্য, কিন্তু ধৰ্ম্মনাতিতে তদ্রুপ হ২বার অবশুক৩৷ নাই। কিন্তু কোন ধৰ্ম্ম মনোনীত কারয়। তাহাতে দক্ষিত হহলে, তৎএতি দৃঢ় ভক্তি ও বিশ্বাস হওয়া নিতাপ্ত আব! শ্যক। ভাক্ত থাকলে যে ধৰ্ম্মই অবলম্বন করা যডক না, তাহাতে ধন্মের যথাথ উদ্দেশ্য সিদ্ধির সস্তাবনা আছে। ভক্ত না থাকলে ধখন।৩র প্রভও শৈথিল্য হয়। এবং এরূপ ৭েথল প্রযুক্ত সমজের শেষ • আলফের সস্তাবনা। সংপ্রাভ বঙ্গায়সমাজ এই দোষে দুষিত হইতেছে। সকলেয়ই, ইহা মনোযোগ করিয়া দেখা উচিত। এই সময়ে প্রক্তি | | |