পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


श्रृिणबि. ं;, s९१a । | বেদ ও মানবাদি ধৰ্ম্মশাস্ত্র সকলই গোত্র ও | প্রবরের প্রমুর্থাৎ মুখে মুখে আসিতেছিল। সঙ্গীতের বিষয়ও সেই মত। সঙ্গীতে ভরত |-ও হনুমানের মত প্রধান । আমরা স্মরণ শক্তি প্রভাবে মুখে মুখে প্রাচীন সঙ্গীত সকল গুঞ্জ হইয়াছি, কিন্তু অনেক প্রাচীন রাগ রাগিণী | বিলুপ্ত হইয়াছে, এবং আরও অনেকের এখনও | বিলুপ্ত হইবার সম্ভাবনা। দেশহিতৈষীরা সম্প্রতি লেখার দ্বারা রাগ রাগিণীগণকে চির| স্থায়ী করিতে আরম্ভ করিতেছেন - ইহা পরম | স্বখের বিষয়। • য়ে যে মহোদয় ইহা করিতে| ছেন, তাহারা সকল বাঙ্গালির ধন্যবাদ ও প্রেমের ভাজন । | মুসলমানদিগের দ্বারা ভারতবর্ষ অধিকৃত হইলে তাহার এ দেশে বসতি করে। মুসলমানের আগমনে ভারতবর্ষের অনেক লাভ হইয়াছে। সঙ্গীত বিষয়েও তাহ দেখা যায়। মুসলমানের হিন্দুদিগের অনেক আচার ব্যবহার গ্রহণ করিয়াছে এবং সঙ্গীত শাস্ত্র আদ্যোপান্ত গ্রহণপূর্বক নানা উন্নতি সাধন করিয়াছে। অর্থব্যয় ও উৎসাহের দ্বার সঙ্গীত অনুশীলন প্রবল রাখিয়াছিল, এবং যত্বের দ্বারা তাহার উন্নতিসাধন করিয়াছে। আশ্চৰ্য্য এই যে, প্রাচীন হিন্দু সঙ্গীত প্রণালী কোন অংশেই ভিন্নজাতি সংসর্গে অপভ্রংশ প্রাপ্ত হয় নাই । স্বভাবেই রহিয়াছে। আরবী, তুরকী প্রভৃতি বিদেশীয় গীতপ্রখা ভারতবর্ষে নাই। আমাদের গীতি রীতি মাত্রেই দেশীয়। আমির খসরুর দ্বারা ৮টা দেশী গীতে বিদেশী ভাগ কিয়দংশ { মিশ্রিত হইয়া সরফরদ, দেওগিরি প্রভূতি ৮টা এই সকল বাগিণীতে "এত প্রবল যে, সে সক- | লকে বিদেশীয় বলির জ্ঞান করা যায় না । | বোধ হয় দেশীয় সঙ্গীতপ্রথা উৎকৃষ্ট বলিয়া | বিদেশীয় গীতপ্রথা তাহার বিকৃতি সাধন | করিতে সক্ষম হয় নাই । o মুসলমানদের দ্বারা বাদ্যের অনেক উন্নতি | সাধন হইয়াছে। সেতার এসরার সারঙ্গ ! ত্যাদি সকল যন্ত্র নব্য । গীতেরও অনেক উপকার দেখা যায়। ধ্রুপদ ব্যতীত খেয়াল, টপ্পা, ঠুংরি ইত্যাদি মুসলমানদের প্রত্বে | প্রকাশ হুইয়াছে, রাগরাগিণী অনেক বাড়ি- ] য়াছে, এবং তালের নূতন পদ্ধতি ও তাহার | চমৎকার পারিপাট্য ইহাদের দ্বার প্রতিষ্ঠিত। । বাঙ্গালায় বহুকাল হইতে সঙ্গীতচর্চার | আদর ও মর্যাদা আছে, এবং বাঙ্গালিদের | বুদ্ধি ও উৎসাহের প্রবলতায় সঙ্গীতের কয়েক | নূতন প্রণালী এদেশে প্রচলিত হইয়াছে। কবি, | আখড়া, হাফ আখড়া, সঙ্কীৰ্ত্তন, যাত্র, | পাচলি এবং আড়খেমটা সম্যকৃরূপে বাঙ্গালি- | দের সামগ্ৰী । . দুঃখের বিষয় এই যে, পুৰ্ব্ব সঞ্চিত ধন | সকল আমাদের বিনষ্ট হইবার সম্ভাবনা হই- | মাছে । ইউরোপীয় বিদ্যাপ্রভাৰে নব্য সম্প্রদায়ের দ্বারা এই দুর্ভাবনা দূৰ হইবার আশ | হওয়াতে যে কিরূপ আহলাদ হয়, তাহ বলা | বাহুল্য । ইউরোপীয়ের বহুকষ্টে সঙ্গীত লেখনপ্রণালী চালনা করিয়াছেন । তাহার। যাহা বহুকষ্টে প্রস্তুত করিয়াছেন, আমাদের তাহা । সহজে গ্রহণ করা মাত্র। ইহা বাঙ্গালিদিগের | অবশ্য বর্ভবা •