পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৪৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


=ജ്ജ বিষবৃক্ষ । BRly | সম্পন্ন মনে করিল—স্বয়ং আপাদ কবরী প্রেমরসার্দী হইল। তখন আশর দেবেন্দ্র প্রথম বসন্তপ্রেরিত এক মাত্র ভ্রমর ঝঙ্কারবৎ গুণ২ স্বরে, সঙ্গীভোদ্যম করিলেন। হীরা দুৰ্দ্দমনীয় প্রণয়স্ফৰ্ত্তি প্রযুক্ত সেই স্বরের সঙ্গে আপনার কামিনী সুলভকলকণ্ঠধ্বনি মিলাইতে লাগিল। দেবেন্দ্র ইরাকে গায়িতে অনুরোধ করিলেন। তখন হীরা প্রেমার্জ চিত্তে, সুরারাগ রঞ্জিত কমল নেত্র বিস্ফারিত করিয়া, চিত্রিতবৎ জযুগবিলাসে মুখমণ্ডল প্রফুল্ল করিয়া, প্রস্ফুটস্বরে সঙ্গীতারম্ভ করিল। চিত্ত সুপ্তি বশতঃ তাহার কঠে, উচ্চস্বর উঠিল । হীরা যাহা গায়িল, তাছা প্রেম বাক্য—প্রেমভিক্ষায় পরিপূর্ণ। তখন সেই পাপ মগুপে বসিয়া, পাপান্তঃকরণ দুই জনে, পাপভিলাষ বশীভূত হইয়া, চিরপাপ রূপ চিরপ্রেম পরস্পরের নিকট প্রতিশ্র ত হইল। হীরা চিত্ত সংযত করিতে জানিত, কিন্তু তাহাতে তাহার প্রবৃত্তি ছিল না বলিয়া, সহজে পতঙ্গবৎ বহ্নিমুখে প্রবেশ করিল। দেবেন্দ্রকে অপ্রণয়ী জানিয়া চিত্তসংঘমে প্রবৃত্ত হইয়াছিল, তাহাও অল্পদুরমাত্র ; কিন্তু যতদূর অভিলাষ করিয়াছিল, তত দুর কৃতকাৰ্য্য হইয়াছিল। দেবেন্দ্রকে অঙ্কীগত প্রাপ্ত হইয়া, হাসিতে হাসিতে তেহার কাছে প্রেম স্বীকার করিয়াও, (বঙ্গদর্শন, মৃts, ১২৭৯ । অবলীলাক্রমে তাহাকেবিমুখ করিয়াছিল। আবার সেই পুষ্পগত কাটামুরূপ হৃদয় } বেধকারী অনুরাগ কেবল পরগৃহে কাৰ্য্য উপলক্ষ করিয়া শমিত করিয়াছিল । কিন্তু যখন তাহার বিবেচনা হইল যে, দেবেন্দ্র প্রণয়শালী, তখন আর তাহার চিত্তদমনে প্রবৃত্তি রছিল না। এই অপ্রবৃত্তিহেতু বিষবৃক্ষে তাহার ফল ফলিল । লোকে বলে, ইহলোকে পাপের দণ্ড দেখা যায় না । ইহা সত্য হউক বা না হউক—তুমি দেখিবে না যে চিত্ত সংযমে অপ্রবৃত্ত ব্যক্তি ইহলোকে বিষবৃক্ষের ফল ভোগ করিল না। সপ্তক্রিংশত্তম পরিচ্ছেদ । সূৰ্য্যমুখীর সম্বাদ । - বর্ষাকাল গেল । শরৎকাল আসিল । শরৎকালও যায়। মাঠের জল শুকাইয়াছে। ধান সকল ফুলিয়া উঠিতেছে। পুষ্করিণীর পদ্ম ফুরাইয়া আসিল । প্রাতঃকালে বৃক্ষপল্লব হইতে শিশির ঝরিতে থাকে। সন্ধ্যাকালে মাঠে২ ধূমাকার হয় । এমতকালে কাৰ্ত্তিক মাসের একদিন প্রাতঃকালে মধুপুরে রাস্তার উপরে একখানা পালকি আসিল । পল্লী গ্রামে পালকিদেখিয়া দেশের ছেলে খেলা ফেলে পাকির ধরে কাতা দিয়া