পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৫১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


(निघ्नश्न, भt३: * २१* ।) দেবেন্দ্রের চরণবিলুষ্টিত হইয়া বলিয়াছিল যে, “দাসীরে পরিত্যাগ করিও না” তখন দেবেন্দ্র তাহাকে বলিয়াছিলেন যে, “আমি কেবল কুন্দনন্দিনীর লোভে তোমাকে এতদূর সম্মানিত করিয়াছিলাম —যদি কুনের সঙ্গে আমার সাক্ষাৎ করাষ্টতে পাের, তবেই তোমার সঙ্গে আমার আলাপ থাকিবে—নচেৎ এই পর্যন্ত। তুমি যেমন গৰ্ব্বিত, তেমনি আমি তোমাকে প্রতিফল দিলাম ; এখন তুমি এই কলঙ্কের ডালি মাতায় লইয়৷ গৃহে যাও !" হীরা ক্ৰোধে অন্ধকারদেখিতে লাগিল। যখন তাহার মস্তক ঘূর্ণন স্থির হইল, তখন সে দেবেন্দ্রের সম্মুখে দাড়াইয়া, ক্ৰকুট কুটিল করিয়া, চক্ষু আরক্ত করিয়া, যেন শতমুখে দেবেন্দ্রকে তিরস্কার করিল। মুখরা, পাপিষ্ঠ। স্ত্রীলোকেই যেরূপ তিরস্কার করিতে জানে, সেইরূপ তিরস্কার করিল। তাহাতে দেবেন্দ্রের ধৈর্মাচুত হইল। তিনি হীরাকে প্রদাঘাত করিয়া প্রমোদোদ্যান হইতে বিদায় কুরিলেন। হীরা পাপিষ্ঠ— দেবেন্দ্র পাপিষ্ঠ এবং পশু । এইরূপ উভয়ের চিরপ্রেমের • প্রতিশ্রুতি সফল হইয় পরিণত হইল। 輸 হীরা পদাহত হইয়া গৃহে গেল না। । ఙe:E &്? ইতর জাতির চিকিৎ* করিত। সিকিৎসা বা ঔষধ কিছুই জানিত না—কেবল বিষবডির সাহায্যে লোকের প্রাণ সংহার করিত। হীরা জানিত যে, সে বিষবড়ি প্রস্তুত করার জন্য উদ্ভিজ্জ বিষ,খনিজবিষ, সপবিষাদি নানা প্রকার সদ্য প্রাণাপুড়ারী বিষ সংগ্ৰহ করিয়া রাখিত। হীরা সেই রাত্রে তাহার ঘরে গিয়া তাহাকে ডাকিয়া গোপনে বলিল যে, “একটা শিয়ালে রোজ আমার ইঁাড়ি খাইয়া যায়। আমি সেই শিয়ালটাকে ন মারিলে তে পারি: না। মনে করিয়াছি, ভাতের সঙ্গে বিষ মিশাইয়া রাখিব—সে আজি হাড়ি খাইতে আসিলে বিষ খাইয় মরিবে. তোমার কাছে অনেক বিষ আছে ; সদ্য প্রাণ নষ্ট হয়, এমন বিষ আমাকে বিক্রয় করিতে পার ?” চগুলি শিয়ালের গল্প বিশ্বাস করিল না । বলিল, “আমার কাছে যাহা চাহ, তাহা আছে ; কিন্তু আমি তাহ বিক্রয় করিতে পারি না । আমি বিষ বিক্রয় করিয়াছি, জানিলে আমাকে পুলিযে ধরিবে ।” - হীরা কহিল, “তোমার কোন চিন্ত৷ নাই। তুমি যে বিক্রয় করিয়াছ, ইহা কেহ জানিবে ন-আমি ইষ্ট দেবতা আর গঙ্গার দিব্য করিয়া বলিতেছি গোবিন্দপুরে একজন চণ্ডাল চিকিৎসা | দুইটা শিয়াল মরে, এতট_বি আমাকে বইময় কতি । সে কেরল চণ্ডালাদি | দাও, আমি তোমাকে শঞ্চাশটাকাবি।”