পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৫১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


(বঙ্গদর্শন, মা, ১২৭৯ ) ভূমিপৃষ্ট করিয়াছেন, আর এক জামু ভূমিস্পর্শ করিতেছে, স্বন্ধসহিত মস্তক নমিত হইয়াছে, সেই অবস্থা চিত্রে চিত্রিত। মস্তক নমিত হওয়াতে, অলকবন্ধ হইতে দুই একটি কর্ণবিলম্বী কুরুবক কুসুম খপিয়া পড়িতেছে; বক্ষ হইতে বসন ঈষৎ অস্ত ছুইতেছে ; দূরে হইতে মন্মথ সেই সময়ে, বসন্ত প্রফুল্লবনমধ্যে অৰ্দ্ধ লুক্কায়িত হইয়া এক জানুভূমিতে রাখিয়া, চারু ধনু চক্রাকার করিয়া, পুষ্পধনুতে পুষ্পশর সংযোজিত করিতেছে। আর এক চিত্রে শ্রীরাম জানকী লইয়া লঙ্ক হইতে ফিরিয়া আলিতেছেন ; উভয়ে এক রত্নমণ্ডিত বিমানে বসিয়া, শূন্য মার্গে চলিতেছেন। শ্রীরাম জানকীর স্বন্ধে এক হস্ত রাখিয়া, আর এক হস্তের পঙ্গুলির দ্বার, নিম্নে, পৃথিবীর শোভা দেখাইতেছেন । বর্ণের মেঘ,—নীল লোহিত শ্বেত,— ধমত্তরঙ্গোৎক্ষেপ করিয়া বেড়াইতেছে। নিম্নে, আবার বিশাল নীল সমুদ্রে তরঙ্গভঙ্গ হইতেছে-সূৰ্যকরে তরঙ্গ সকল হীরক রাশির মত জ্বলিতেছে। এক পারে তাঠি দূরে—“সৌধকিরীটিশী লক্ষা” —তাহার প্রাসাদাবলির স্বর্ণমণ্ডিত চুড়া সকল সূর্যাকরে জ্বলিতেছে। অপর পারে, খুমি,শোভাময়ী “ওমাল তালবনরাজিলীলা" "সমুদ্রবেলা।” মধ্যে শূন্যে ইংশ্রেণী সকল উড়িয় যাইতেছে। বিষবৃক্ষ । 重》邻 আর এক চিত্রে, অর্জুন স্বভদ্রাকে হরণ করিয়া রথে তুলিয়াছেন। রথ শূন্যপথে মেঘমধ্যে পথ করিয়া চলিয়াছে, পশ্চাৎ অগণিত যাদবীসেন ধাবিত হইতেছে, দূরে তাহাদিগের পতাকা শ্রেণী এবং রজোজনিত মেঘ দেখা যাইতেছে। স্কুড়দ্র। স্বয়ং সারথি হইয়া রথ চালাইতেছেন ; অশ্বের মুখামুখি করিয়া, পদক্ষেপে মেঘ সকল চর্ণ করিতেছে ; শুভদ্রা আপন সারথা নৈপুণে। প্রীত হইয়। মুখ ফিরাইয়া অর্জনের প্রতি বক্র দৃষ্টি করিতেছেন, কুন্দ দন্তে আপম অধর দংশন করিয়া টিপি২ হাসিতেছেন ; রথবেগ জনিত পবনে তাহার অলকা সকল উড়িতেছে বিমান চতুস্পার্শে নানা | | —দুই এক গুচ্ছ কেশ স্বেদ বিজড়িত হইয়া কপালে চক্রা করে লিপ্ত হইয়া রহিয়াছে । তাfর খানি চিত্র, সাগরিকা বেশে রত্নাবলী, পরিষ্কার নক্ষত্ৰলোকে বালহুমাল তলে, উদ্বন্ধনে প্রাণত্যাগ করিতে যাইতেছেন । তমাল| H బ్లా একটি উজ্জ্বল পুষ্পময়ী | i এক গলদেশে পরাইতেছেন, আর এক হস্তে চক্ষের জল মুছিতেছেন ; লতা পুষ্প সকল তাহার কেশদামের উপর অপূর্ব শোভা করিয়া রহিয়াছে। আর এক খানি চিত্রে শকুন্তলা দুষ্মন্তকে দেখিবার জন্তু চরণ হইতে কাল্পনিক কুশাঙ্কুর মুক্ত