পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৫২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


《출 • টিপি২ হাসিতে লাগিলেন । এই অবকাশে অশ্বের ফটক নিকটে দেখিয়া একেবারে গাড়ি লইয়া বাহির হইয়া সদর রাস্তায় গেল। তখন সূৰ্য্যমুখী লোক লজ্জায় ম্রিয়মাণা হইয়া ঘোমটা টানিতে লাগিলেন। র্তাহার দুর্দশা দেখিয়া নগেন্দ্র নিজ হস্তে বলগা ধারণ করিয়া বিষবৃক্ষ । (वत्रकर्शनं, મા: ૨૧મ (

  • ১৯১০ সম্বৎসরে ।

ইষ্ট দেবতা স্বামির স্থাপনা জন্য এই মন্দির তাহার দাসী সূৰ্য্যমুখী কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হইল।” নগেন্দ্র ইহা পড়িলেন। নগেন্দ্র কতবার গাড়ি অন্তঃপুরে ফিরাইয়া আনিলেন। পড়িলেন—পড়িয়া আকাঙক্ষা পুরে না— এবং উভয়ে অবতরণ করিয়া কত হাসি | চক্ষের জলে দৃষ্টি পুনঃ২ লোপ হইতে হাসিলেন। শয্যাগৃহে আসিয়া সূৰ্য্যমুখী সুভদ্রার চিত্রকে একটি কিল দেখাইয়া বলিলেন, “তুই সর্বনাশীইত যত আপদের গোড়া।” নগেন্দ্র ইহা মনে করিয়া কত কঁদিলেন। আর যন্ত্রণ সহ করিতে না পারিয়া গাত্রোপান করিয়া পদচারণ করিতে লাগিলেন । কিন্তু যে দিকে চাহেন—সেই দিকেই সূৰ্য্যমুখীর চিহ্ন। দেয়ালে চিত্রকর যে লতা লিখিয়াছিল— সূৰ্যমুখী তাহার অনুকরণ মানসে একুটি লতা লিখিয়াছিলেন। তাহা তেমনি বিদ্যমান রহিয়াছে। একদিন দোলে, সূর্যমুখী স্বামিকে কুকুম ফেলিয়া মারিয়ীছিলেন–কুকুম নগেন্দ্রকে না লাগিয়া, দেয়ালে লাগিয়াছিল। আজিও আবিরের চিহ্ন রহিয়াছে। গুহ প্রস্তুত হইলে সূৰ্য্যমুখী এক স্থানে স্বহস্তে লিখিয়া রাখিয়ছিলেন । | | | লাগিল—চক্ষুমুছিয়া২ পড়িতে লাগিলেন। পড়িতেই দেখিলেন, ক্রমে আলোক ক্ষীণ হইয়া আসিতেছে। ফিরিয়া দেখিলেন, দীপ নিৰ্ব্বাণোন্মুখ। তখন নগেন্দ্র নিশ্বাসত্যাগ করিয়া, শয্যায় শয়ন করিতে গেলেন। শযায় উপবেশন করিবামাত্র অকস্মাৎ প্রবলবেগে বৰ্দ্ধিত হইয়া ঝটিক{ ধাবিত হইল ; চারি দিগে কবাট তাড়নের শব্দ হইতে লাগিল। সেই সময়ে শূন্ত তৈল দীপ প্রায় নির্ববাণ হইল—অল্পমাত্র খছোতের স্যায় আলো রহিল। সেই অন্ধকার তুল্য আলোতে এক অদ্ভুত ব্যাপার তাহার দৃষ্ট্রিপথে আসিল । ঝঞ্জা বীতের শব্দে চমকিত হুইয়া, খাটের পাশে যে দ্বার মুক্ত ছিল, সেই দিগে তাহার দৃষ্টি পড়িল। সেই মুক্ত দ্বার পথে, ক্ষীণালোকে, এক ছায়াতুল্য মূৰ্ত্তি দেখিলেন। ছায়া স্ত্রীরূপিণী; কিন্তু আরও যাহা দেখিলেন, তাহাতে নগেন্দ্রের শরীর কণ্টকিত, এবং হস্তপদাদি কম্পিত