পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৫৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


દ્રથના অনেক লোকের থাকে, কিন্তু তৎসাধনার্থ পরস্পরের সাহায্য করিতে সকলেই ইচ্ছুক বা সক্ষম হয় না। ঐক্য রক্ষার জন্য দলের প্রত্যেক ব্যক্তির কৰ্ত্তব্য সাধনের নিমিত্ত এতাদৃশ উৎস্থক হওয়া আবশ্যক, যেন তিনি ভিন্ন কাৰ্য্য সমাধা হইবেক না । গুরুতর কার্য এক ব্যক্তির দ্বারা নির্ববাহ হওয়া দুষ্কর বলিয়াই ঐক্যের প্রয়োজন হইয়া থাকে ; তাহতে যদি কাৰ্য্যকারকের স্ব২ ক্ষমতার অংশ মাত্র নিযুক্ত করেন, তবে লোকসংখ্যা বৃদ্ধিতে কোন উপকার দর্শে না । কাৰ্য্য নির্ববাহ করাই ঐক্যের উদ্দেশ্য, তৎপরিবৰ্ত্তে শ্রম লাঘবকে উদ্দেশ্য জ্ঞান-করিলে কার্য্যের ক্ষতি অবশ্যই হইবেক । কারণ লোক বৃদ্ধিতে স্বভাবতঃ অনেক দৌৰ্ব্বল্যের হেতু উপস্থিত হয় । মনুষ্যের মন নানাদিকে ভ্রমণ করিয়া থাকে। যদি দুই ব্যক্তিকে এক বিনয়ে নিবিষ্ট করিতে কোন নির্দিষ্ট পরিমাণ পরিশ্রম আবশ্যক হয়, তবে তিন জনের স্থলে তাহার তিন গুণ এবং চারি জনের স্থলে ছয় গুণ পরিশ্রম প্রয়োজন হইলেক । অতএব বহুসংখ্যক ব্যক্তির মনে একটা উদ্দেশ্য জাগরূক রাখিবার জন্য যে অতিরিক্ত প্রয়াস আবশ্যক, তজ্জনিত ক্ষয় পুরণার্থ তাবৎ লোককে উদ্দিষ্ট কৰ্ম্ম নির্ববাহ }ময়ে একাকী নিযুক্ত হইয়াছি, এইরূপ জ্ঞান করিতে হইবেক । প্রয়োজনাতিরিক্ত ঐক্য। (१झश=त्रि, भta, $२१• ) লোককে ঐক্যে রাখিতে অনেক বৃথা শ্রম বায় হইয়া থাকে। সুতরাং তাহারা কৰ্ম্মহানি করে । র্যাহার এক বাক্যে কোন কার্যে নিযুক্ত হয়েন, র্তাহাদিগের পুরস্পরের সাহায্য প্রয়োজনীয় কি না, তাহা অগ্রে নির্ণয় করা উচিত। যদি উদ্দেশ্যটা এতাদৃশ মহৎ হয় যে, লোক যত অধিক হইবেক, ততই সুচারুরূপে কার্য সমাধা হইবেক, তবে উদ্দেশ্যের পূর্ণাবস্থা অসংখ্য লোকেরও অসাধ্য বলিতে হইবেক ; সুতরাং এক ব্যক্তিরও পূর্ণ আয়াসের কিঞ্চিৎমাত্র ব্যতিক্রম হইলে উদ্দেশ্য সিদ্ধির পক্ষে তদনুযায়ী ব্যাঘাত হয় । - এই সামান্য কথা এতাদৃশ বাহুল্য ভাবে লিখিবার হেতু এই, আমাদিগের মধ্যে অনেকে, প্রত্যেকের আয়াস অল্প হইবেক, মনে করিয়া দলবৃদ্ধি করিবার চেন্টা করেন এবং পরিণামে বিফল প্রয়াস হয়েন । এরূপ কার্য কুসংস্কার-মূলক । বহুলোকের সাহায্য অবলম্বন করিতে হইলে প্রথমতঃ উদ্দিষ্ট কৰ্ম্মের অঙ্ক প্রত্যঙ্গ গুলিকে পুনঃ পুনঃ বিভাগ করিয়া ভিন্ন ভিন্ন ব্যক্তির হস্তে ন্যস্ত করিতে হয়, এবং লোকবল থাকিলে এক একটা বিশেষ কার্যের ভার পর্যায়ক্রমে ভিন্ন ভিন্ন ব্যক্তির হস্তে প্রদান করা কৰ্ত্তব্য ; তথাপি এক জনের কার্য্য দুই জনের হস্তে প্রদান করা উচিত নহে। কার্যের অঙ্গ