পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৫৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


i | i | ( इष्टझर्थम, बi**२१• ।) উষ্ঠত হইয়াছে; লে কাৰ্য্যাস্তরে ব্যাপৃত। এরূপ সময়ে তরবারি উত্তোলন করিবার জন্য আর চিন্তা করিতে হয় না । কিন্তু . এই সঙ্গে২ কতকগুলি মহৎ গুণ অভ্যাস হইয়া য য় ! যাহারা যুদ্ধ কালে প্রাধান্ত প্রদর্শন কবেন, তাহাদিগের মনে সাহস, স্বচিন্তা ও স্বাবলম্বন এবং পরোপকারবাসনা প্রদীপ্ত হয়। র্যাহারা ঐ সকল ব্যক্তির দ্বারা উপকু দ্য হয়েন, উহার কু তজ্ঞতা আভাস করেন, এনং এতদুভয় শ্রেণীর মধ্যে হৃদ্যতা, সাহায্য করিবার h | $कT । & 8 S হয় যে, যাহারা যোদ্ধাগণের সহিত একত্রে আলাপ, একত্রে ভোজন, একত্র ভ্রমণ করে, তাহাদিগের মনেও ঐ সকল ধৰ্ম্মের ংস্কার হইয় উঠে । ইংরাজদিগের ঐক্য দেখিয় আমরা আপন আপনি কতই না ধিক্কার করিয়া থাকি ! কিন্তু ঐক্য সাধনের এক মহৎ উপায় ভক্তি ; তাহ আমাদিগের প্রায় নাই বলিলেই হয়। ব্যক্তি বিশেষকে দেখিয়া একবারও এমন মনে হয় না যে ইনি আমার অতীব মান্য ; ইহার আদেশ মতে আমার পুত্রের মস্তকে করাত ক্ষমতা এবং সাহায্য প্রাপ্তির আশ্বাস বৰ্দ্ধিত হয়। সৈনিক পুরুষদিগের দেওয়াও কৰ্ত্তব্য এবং সর্বস্থান্ত ੇ | প্রধান ধৰ্ম্ম কর্তৃপক্ষের আজ্ঞা পালন । দাস্ত বৃত্তি অবলম্বন করিলেও দোষ নাই। যুদ্ধকলে ইহার চালনার দ্বারা একদিগে | পুনরায় ব্রাহ্মণ স্বঃি ন হইলে তাহার কর্তৃত্ব অন্যদিকে তাধীনত্ব কহণ বিষযে : সকলেই উৎকর্ষ লাভ করেন । যে স্থলে যোদ্ধগণ বেতনলালসার পরিবর্কে স্বদেশ রক্ষ বা তদনুরূপ অদ্য কোন মহৎ উদ্দেশ্যের নিমিত্ত যুদ্ধে রত হয়েন, সেখানে পরাজিত ফুলেও তাহাদিগের মহাত্ত্বো র ইয়ত্ত থাকে না । ইহঁরা পদে২ আত্মসংযম এবং পরোপকার ধৰ্ম্ম অভ্যাস করেন। রাজ্য রক্ষার্থই ঐক্যের প্রয়োজন । কিন্তু এতাদৃশ ব্যক্তিগণ বিভিন্ন মতাবলম্বী লোক সমূহকে একত্র করিয়া নুতন রাজ্য সংস্থাপন করিতে পারেন। -যুদ্ধের দ্বারা এরূপ অসাধারণ ফললাভ তার পুর্বর্ণপদ প্রাপ্ত হইবেন না-—অতএব তাহাদিগের সাহায্য প্রত্যাশা করা বৃথা । এক্ষণে সৰ্ব্বত্র লিবেক শক্তি প্রক শ এবং সদগুণ আভাস ভিন্ন আমাদিগের উপায়ান্তর নাই। কাল্পনিক আচরণ পরিত্যাগ করিলে, আমরা ক্রমশঃ পরম্পরে বিশ্বাস পাত্র হইতে পারিব। কোন উদেশ্ব সকলের মনে জাগরূক হইতেছে না বলিয়া উৎকণ্ঠিত হইবার আবশ্যকতা নাই ; কারণ অবস্থার সাদৃশ্য না ঘটিলে উদ্দেশ্যের একতা ’ হয় না। কিন্তু পরস্পরের সাহায্যাৰ্থ কর্তৃত্ব, তাধীনত্ব এবং সমকক্ষের প্রতি বিশ্বাস, এই তিনট: গুণ অভ্যাস করা আৱশ্যক। কতৃত্ব