পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৫৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


(बश्चार्थन, কাi.১২৭৯) বঙ্গদেশের কৃশষ ( ( ని বঙ্গদেশের কৃষক । চতুর্থ পরিচ্ছেদ । হইব। বঙ্গদেশের কুযকের অবস্থা প্রাকৃতিক নিয়ম | মুসন্ধানই আমাদের মুখ্য উদ্দেশ্য। DDD DDDDDD DDD DS DS BB BB BBBB BBBBB BBBB রাজার দোষ हेि, ইহা অবশ্য স্বীকার } আমরা প্রবৃত্ত হইতেছি, তাহ যতদূর করিতে হইবে যে, বঙ্গদেশের কৃষকের | বঙ্গদেশের প্রতিবর্তে সমুদায় ভারতবর্ষের . দুৰ্দ্দশা আজি কালি হয় নাই । ভারতবর্ষীয় ইতর লোকের অনুন্নতি ধারাবাহিক ; মতদিন হইতে স্বন্ত্রি, প্রায় ততদিন হইতে ভারতবর্ষীয় g কৃষকদিগের দুর্দশার পাশেচত্যের কথায় বলেন, একদিনে রোমনগরী নিৰ্ম্মিত হয় নাই। এদেশের কৃষকদিগের দুর্দশাও দুই এক শত বৎসরে ঘটে নাই । আমরা তৃতীয় পরিচ্ছেদে বলিয়াছি, হিন্দু রাজার রাজ্যকালে রাজা কর্তৃক প্রজাপীড়ন হইত না ; কিন্তু তাহাতে এমন বুঝায় না যে তৎকালে প্রজাদিগের বিশেষ সৌষ্ঠব ছিল । এখন রাজার প্রতিনিধিস্বরূপ অনেক জমীদারে প্রজাপীড়ন করেন ; তখন আর এক শ্রেণীর লোকে পীড়িত করিত। তাহার কে, তাহা পশ্চাৎ বলিতেছি। কি কারণে ভারতবর্ষের প্রজা চিরকাল উন্নতিহীন, অন্ত আমরা তাইার সমুসন্ধানে প্রবৃত্ত প্রতি ততদূর বৰ্ত্তে ; বঙ্গদেশে তৎসমুদায়ের যে ফল ফলিয়াছ, সমগ্র ভারকে বঙ্গ দেশ ভারতের একটা খণ্ড মাত্র বলিয়া তথায় সেই সূত্রপাত । ফল ফলিয়াছে। এবং সেই ফল কেবল কৃষিজীবীর কপালেই ফলিয়ছে, এমত নহে ; শ্রমজীবীমাত্রেই সমভাগে সে ফলভোগী । অতএব আমাদিগের এই প্রস্তাব, ভারতীয় শ্রমজীবী প্রজামাত্র সম্বন্ধে অভিপ্রেত, বিবেচনা করিতে হইবে । কিন্তু ভায়তীয় শ্রমজীবীর মধ্যে কৃষিজীবী এত অধিক যে, অন্য শ্রমজীবীর অস্তিত্ব এ সকল আলোচনার কালে স্মরণ রাখা না রাখা, সমান। জ্ঞান বৃদ্ধিই যে সভ্যতার মূল এবং পরিমাণ, ইহা বক্ল কর্তৃক সপ্রমাণ হইয়াছে। বর বলেন যে, জ্ঞানিক উন্নতি ভিন্ন নৈতিক উন্নতি নাই। সে কথায় আমরা অমুমোদন করি না, এবং এই