পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৫৮৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


રાઇ ’ - " বানরচরিত। বেঙ্গদর্শন, ফুঃ, ২২৭৯ } আমাদিগের যুক্তি সঙ্গত বোধ হইতেছে লঙ্কতং বিদ্যাধর চক্রবর্তী প্রৰিবন্ধং না, কেননা মালৰেশ্বর মুঞ্জের সভাসদ নাগানন্দং নাম নাটকং ধনঞ্জয় কৃত “দশরূপ” এবং ভোজদেব | এ কথা যথার্থপ্রণীত "সরস্বতী কণ্ঠভিরণ” মধ্যে রত্নী মগনল দৃষ্ঠ কাব্য অতিচমৎকার। বলী ও নাগানন্দ হইতে উদাহরণ উদ্ধৃত কাব্য-প্রিয়গলে বহু মূল্য রত্নহার হুইয়াছে। এই অলঙ্কার গ্রন্থদ্বয় ১১১৩ | ‘রত্নাবলী”—(যার কিবা স্বচারু গ্রন্থন 1) : খ্ৰীষ্টাব্দের বহুশত বৎসর পূর্বে রচিত, কোথা রয় তার কাছে হীরক রতন । , , স্বতরাং তাহা হইলে ঐহর্ষের দৃশ্ব কাব্য ; রত্নাবলীর নান্দীমুখে গ্রন্থকার হরপার্বদ্বয় উইলসন সাহেবের আনুমানিক তীকে প্রণাম করিয়াছেন, কিন্তু তাহার কালে রচিত হয় নাই। পরে নাগানন্দ রচনা করেন। তাহাতে শ্ৰীহৰ্ষ স্বয়ং লিখিয়াছেন, “ক্রীহমো ! বুদ্ধদেবকে নমস্কার করিয়া মঙ্গলাচরণ নিপুণঃ কবিঃ” এবং “ঐহর্ষেদেবে না করা হইয়াছে। ইহাতে বোধ হয়, শ্ৰীহৰ্ষ পূর্ববস্তু রচনালঙ্কত রত্নাবলী ” বৌদ্ধ ধৰ্ম্মাবলম্বী হইয়াছিলেন । তথা শ্ৰীহৰ্ষ দেবেন। পূর্ববস্তু রচনা- শ্রীরামদাস সেন । বানরচরিত। বঙ্গদর্শনের অসংখ্য সমালোচকের সেই মহাত্মার কে, তাহা প্রস্তাবের মধ্যে কোন এক জন (বাচনিক কিসম্বাদ শিরোনাম দেখিলে বুঝা যাইবে। বঙ্গীয় পত্রে, তাছা আমাদিগের স্মরণ হয় না) । সমালোচকদিগের কথায় যে আমাদের আমাদিগের উপদেশ দিয়াছিলেন, যে ; অচলাভক্তি, এই প্রস্তাব তাহার প্রমাণ সাময়িক পত্রে দেশ বিশ্ৰুত ৰাক্তিদের স্বরূপ। ; জীৰন চরিত লিখিত হয়। সেই উপ- বানরদিগকে কেবল উপৰাস করিবার দেশ বাক্য অন্ত - আম্বাদিগের স্মরণ ! কোন কারণ নাই। ডারুইন সাহেব হইয়াছে। আমরা অল্প উপদেষ্টার | প্রতিপন্ন করিয়াছেন যে, মনুষ্য বানর জাজ্ঞাসুৰী হইয়া কোন প্রদেশবিশ্রাত” | বংশ সম্ভূত।.এ কথায় রিনি হাস্ত কৃরি सिक्रान्ति চরিত্ত বর্ণনে প্রবৃত্ত হইলাম। বেন,ড়িন্তি দুকুইন সবে গ্রন্থপঞ্জল