পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৫৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


് - ভাষার উৎপত্তি । কি হিন্দি, কি সংস্কৃত, কি ইংরাজী, কি আরবি, কি পারসি, কোন ভাষা যখন ছিল না, মনুষ্যগণ কি রূপে আদৌ ভাষা শিক্ষা করিল, আমরা বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি অবলম্বন’ পূর্বক সিদ্ধান্ত করিতে যত্ন করিব। নরজাতির স্বভাব সম্বন্ধে যাহা কিছু আমরা জানি, তাহার সাহায্যে অতীত কালের গাঢ় তিমির ভেদ করিয়া ভাষার প্রথম সঞ্চার বর্ণনা করাই আমাদিগের উদ্দেশ্য । মনোভাব-ব্যঞ্জক পরিস্ফট বর্ণময় শব্দ মালার নাম ভাষা । હારે লক্ষণের দ্বারা প্রথমতঃ, অভিপ্রায় প্রকাশক অঙ্গভঙ্গিগুলি বাদ যাইতেছে। যে কথা কহিতে পারে না, যাহার শব্দের অকুলীন আছে, বা যে দেশ বিশেষের ভাষা না জানিয়া কার্য্যোপলক্ষে তথায় উপস্থিত হয়, দেহ সঞ্চালনই তাহার প্রধান সম্বল। মুক, শিশু, অসভ্য বা ভাষানভিজ্ঞ পর্যটক, হাত পা মুখ প্রভৃতি নড়িয়া কোন রূপে আপনার মনের বাঞ্ছা জ্ঞাপন করিতে চেষ্টা পায়। কিন্তু এবম্বিধ শারীরিক ক্রিয়া সমুদায় ভাষাপদ বাচ্য নহে দ্বিতীয়তঃ, আমাদিগের লক্ষণ দ্বারা মনুষ্যের পরিস্ফুট বর্ণাত্মক ভাষা অপর জীবগণের (षत्रप*न, ६ळ्छ, २९१० তাহার সন্দেহ নাই। কিন্তু তাহাদিগের শব্দগুলি পরিস্ফুট ভিন্ন ভিন্ন বর্ণেবিভক্ত ? কর ষায় না ; সেগুলি অপরিস্ফুট স্বর মাত্র । সত্য বটে, কোন কোন পাখিতে । মানব ভাষার অনুকরণ করিতে পারে ; “ কিন্তু তাহাদিগের স্বাভাবিক ভাযা প্রায় অধিকাংশ অস্ফট, অথবা একটি বাধা স্বর মাত্র। ভাষার উৎপত্তি সম্বন্ধে তিনটী ম আছে, ১ম অপৌরুষেয়ত্ববাদ *, ২য় সম্মতিবাদ, ৩য় অমুকৃতি বাদ । আমরা | যথাক্রমে এই তিনটার পর্যালোচনা করিব অপৌরুষেয়ত্ববাদীরা বলেন যে, ভাষা মনুষ্য-নিৰ্ম্মিত নহে, ঈশ্বর-প্রদত্ত । র্তাহ দিগের মতে সুখ, দুঃখ, জ্ঞান, বাসন, ইচ্ছা প্রভূতি প্রকাশার্থে প্রথমস্থ স্ট নর কুল-পিতা সুন্দর ভাষ-জ্ঞান ভূষণে দেবাদিদেব জগৎপতি কর্তৃক বিভুষিত হইয়াছিলেন। যাহারা ভূত কালের অন্ধকারময় গর্ভে জ্যোতিৰ্ম্ময় সম্যযুগ নিরীক্ষণ করেন এবং যাহার কাল সহকারে মানব-জাতির বিদ্যা ও নীতি বিষয়ে অধো

  • আমাদিগের দেশে যাহার বেদকে অপৌরষেয় क्ष्लन, उाशनिप्णब्र अप्पी, कश्९ छाप्रुन दश भश्व

- SS S SSAAA AS AAAAAS অস্ফট শব্দ সমূহ হইতে বিভিন্ন বলিয়া বিরচিত নহে, ঈশ্বর প্রণীত : কেহ বিবেচনা করেন ڼه গণ্য হইতেছে । অধিকাংশ জন্তুই যে | শব্দ বিশেষ দ্বার স্বজাতির মধ্যে স্থখ দ্রঃ ইচ্ছা প্রভৃতি প্রকাশ করির থাকে, যে বেদ নিত্য কাহারও রচিত নহে। শেষোক্ত মতে ভাষার নিত্যত কল্পিত হইতেছে ; কিন্তু এমতটা এরূপ অসঙ্গত, যে ইহার বিষয়ে কিছু লেখার অবস্থ্যক বোধ হইল না। • o - |