পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


| थझकर्णन, tज*, १९१० } বিষবৃক্ষ । צף কুল দেখিল যে, স্বৰ্যমুখী আকাপটে দৃষ্ট । নারীর স্তায় হামাঙ্গী নহে। স্বৰ্য্যমুখী, পূর্ণচন্দ্রতুল্য তপ্তকাঞ্চনুবর্ণিনী। তাহার চক্ষু সুন্দর বটে, কিন্তু যে প্রকৃতির চক্ষু কুন্দগ্ৰপ্নে দেখিয়াছিল, এ সে চক্ষু, নছে। স্বৰ্যমুখীর চক্ষু; সুদীর্ঘ, জলকম্পর্শক্রযুগলসমাশ্ৰিত, কমনীয় বঙ্কিম পল্পবরেখার মধ্যস্থ, স্কুলকৃষ্ণ তারাসনাথ, মগুলাংশের আকারে ঈষৎ স্ফীত । উজ্জল অথচ মন্দগতিবিশিষ্ট ।* স্বপদুষ্ট খামাঙ্গীর চক্ষুর, এরূপ অলৌকিক মনোহাৱিত্ব ছিল না । স্বৰ্য্যমুখীর অবয়বও সেরূপ নহে। স্বপ্নघृहे খৰ্ব্বাকৃতি ; স্বৰ্য্যমুখীর আকার কিঞ্চিৎ দীর্ঘ, বাতান্দোলিত মাধবীলতার দ্যায় সৌন্দর্যা | স্বৰ্য্যমুখী তাহার অপেক্ষ শতগুণে মুন্দরী। আর স্বপ্নদৃষ্টার বয়স বিংশতির অধিক বোধ হয় নাই—স্বৰ্যমুখীর বয়স প্রায় ষড়বিংশতি। স্বৰ্য্যমুখী কুন্দকে সাদর সম্ভাষণ করিয়া, তাহার পরিচর্য্যাৰ্থ দাসীদিগকে ডাকিয় আদেশ করিলেন এবং তন্মধ্যে যে প্রধান, তাহাকে কছিলেন, “এই কুন্দের সঙ্গে আমি তারাচরণের বিবাহ দিব। অতএব ইহাকে তুষুি আমার ভাইজের মত যত্ন করিবে।” দাসী স্বীকৃত হইল। কুন্দকে সে সঙ্গে করিয়া কক্ষাস্তরে লইয়া চলিল। কুন্দ এতক্ষণে তাহার প্রতি চাহিয়া দেখিল । দেখিয়া, কুন্দের শরীর কণ্টকিত, এবং আপাদমস্তক স্বেদাক্ত হইল। যে স্ত্রীমূৰ্ত্তি কুমা স্বপ্নে মাতার | অঙ্গুলিনির্দেশক্রমে আকাশপটে দেখিয়াছিল, এই দাসীই ত সেই পদ্মপলাশলোচনা শ্রামাঙ্গী । কুন্দ ভীতিবিহবলা হইয়া, মৃদ্ধ নিক্ষিপ্ত শ্বাসে জিজ্ঞাসা করিল, “তুমি কে গা ?” দাসী কহিল, “আমার নাম হীরা.।” অষ্টম পরিচ্ছেদ । পাঠক মহাশয়ের বড় রাগের কারণ । এই খানে পাঠক মহাশয় বড় বিরক্ত, হইবেন । আখ্যায়িক গ্রন্থের প্রথা আছে যে, বিবাহটা শেষে হয় ; আমরা অগ্ৰেই | কুন্দনন্দিনীর বিবাহ দিতে বসিলাম। আরও } চিরকালের প্রথা আছে যে, নায়িকার সঙ্গে যাহার পরিণয় হয়, সে পরম সুন্দর হইবে, সৰ্ব্বগুণে ভূষিত, বড় বীরপুরুষ হইবে, এবং ! নায়িকার প্রণয়ে ঢল ঢল করিবে । গরিব । তারাচরণের ত এ সকল কিছুই নাই— | সৌন্দর্য্যের মধ্যে তামাটে বর্ণ, আর খাদা নাক—বীৰ্য্য কেবল স্কুলের ছেলের মহলে | প্রকাশ—আরঃপ্রণয়ের বিষয়টা কুন্দনন্দিনীর । সঙ্গে তাহার কতদূর ছিল, বলিতে পারি না ; | কিন্তু একটা পোষা বানরীর সঙ্গে একটু একটু, সে যাহা হউক, কুন্দনন্দিনীকে নগেন্দ্র | বাট লইয়া আসিলে, তারাচরণের সঙ্গে | তাহার বিবাহ হইল। তারাচরণ স্বন্দরী স্ত্রী । शत्त्व व्हेल्लो cसिटजन । किरू छ्नातौं झैँ डाङ्ग्रेग्न, ! তিনি এক বিপদে পড়িলেন।gশাঠক মহাশয়ের স্মরণ থাকিবে, তারাচরণের স্ত্রীশিক্ষা ও ! জেনানা ভাঙ্গার প্রবন্ধ সকল প্রায় দেবেন্ধু বাবুর বৈঠকখানাতেই গড় হইত। তৎ கர்