পাতা:বঙ্গদর্শন-প্রথম খন্ড.djvu/৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Պնր ( चक्रक्नीब, बी, १९१०) ! | কার কতকগুলি পদার্থের সমষ্টির ন্যায় দেখাইতেছিল। এই অপূৰ্ব্ব মেঘ সৌরবায়ুব উপরে পঞ্চদশ সহস্র মাইল উদ্ধে ভাসিতেছিল। ইহা বলা বাহুল্য যে, প্রফেসর ইয়ঙ ইহার দৈর্ঘ্য প্রস্থও মাপিয়াছিলেন। তাছার দৈর্ঘ্য লক্ষ মাইল—প্রস্থ ৫৪,০০০ মাইল। বারটি | পৃথিবী সারি সারি সাজাইলে, তাহার দৈর্ঘ্যের সমান হয় না—ছয়ট পৃথিবী সারি | সারি সাজাইলে, তাহার প্রন্থের সমান ! झग्न न ! - দুই প্রহর ব্যজিয়া অৰ্দ্ধ ঘণ্টা হইলে, মেঘ এবং তন্মুলস্বরূপ স্তম্ভগুলির অবস্থাপরিবর্তনের কিছু কিছু লক্ষণ দেখা যাইতে লাগিল । | সেই সময়ে প্রফেসর ইয়ঙসাহেবকে দূরবীক্ষণ | রাখির স্থানান্তরে যাইতে হইল। , একটা বাজিতে পাঁচ মিনিট থাকিতে, যখন তিনি | প্রত্যাবর্তন করিলেন, তখন দেখিলেন, যে চমৎকার । নিম্ন হইতে উৎক্ষিপ্ত কোন ভয়ঙ্কর বলের বেগে মেঘখণ্ড ছিন্ন ভিন্ন হইরা গিয়াছে, তৎরিবর্তে সৌর গগুন ব্যাপিয়া ঘনবিকীর্ণ | উজ্জ্বল সুত্রাকার পদার্থ সকল উদ্ধে ধাবিত হইতেছে। ঐ স্বত্রাকার পদার্থ সকল অতি প্রবল বেগে উদ্ধে ধাবিত হইতেছিল। | সৰ্ব্বাপেক্ষ এই বেগই, চমৎকার। আলোক, বা বৈদ্যুতীয় শক্তি প্রভৃতি ভিন্ন, | গুরুত্ববিশিষ্ট পদার্থের এরূপ বেগ শ্রতিগোচর }হয় না। ইয়ঙ সাহেব যখন প্রত্যাবৃত্ত হইলেন, তখন ঐ সকল উজ্জ্বল স্বত্রাকার পদার্থ লক্ষ মাইলের উদ্ধে উঠে নাই ; পরে দশ মিনিটের মধ্যে বাহ লক্ষ মাইলে ছিল, ಕ್ಲಕ ಕ್ಲೆ:ಕ್ತಿ: ಆಸ್ತಿ or fi লক্ষ মাইলতি হইলে, প্রতি সেকেণ্ডে ১৬৫ মাইল গতি হয়। অতএব উৎক্ষিপ্ত পদার্থের দৃষ্ট গতি এই। . . . এই গতি কি ভয়ঙ্কর, তাহ মনেরও | অচিন্ত । কামানের গোলা অতিৰেগবান | হইলেও কখন এক সেকেণ্ডে অৰ্দ্ধ মাইল । যাইতে পারে না। সচরাচর কামানের | গোলার বেগের বহুশত গুণ এই সৌর | পদার্থের বেগ, এ কথা বলিলে অভুক্তি | হইবে না । দুই লক্ষ মাইল উদ্ধেত এই বেগ দেখাগিয়াছিল। যে উৎক্ষিপ্ত পদার্থ দুই লক্ষ ] মাইল উদ্ধে এত বেগবান, নির্গমকালে | তাহার বেগ কিরূপ ছিল ? সকলেই জানে | যে, যদি আমরা একটা ইষ্টকখও উন্ধে | নিক্ষিপ্ত করি, তাহা হইলে যে বেগে তাহা নিক্ষিপ্ত হয়, সেই বেগ শেষ পর্য্যস্ত থাকে না, ক্রমে মদীভূত হইয়া, পরিশেষে একবারে বিনষ্ট হইয়া যায় ; ইষ্টকখওও ভূপতিত হয় । ইষ্টকবেগের হ্রাসের দুই কারণ ; প্রথম পৃথিবীর মাধ্যাকর্ষণী শক্তি, দ্বিতীয় বায়ুজনিত প্রতিবন্ধকতা । এই দুই কারণই স্বৰ্য্যলোকে বৰ্ত্তমান। যে বস্তু যত গুরু, তাহার মাধ্যা- | কর্ষণী শক্তি তত বলবতী । পৃথিবী অপেক্ষা সুৰ্য্যের মাধ্যাকর্ষণী শক্তি স্বৰ্য্যের নাড়ীমণ্ডলে २४ ७* श्रशिक ।। ७छ्झऊघम कतिब्र लक ক্রোশ পর্য্যস্ত যদি কোন পদার্থ উখিত হয়, তবে তাহ যখন স্বৰ্য্যকে ত্যাগ করে, তৎকালে তাহার গতি প্রতি সেকেণ্ডে অবশ্যই ২১৪ माईण हिंण । हेइ अननां शत्र निरु । क्षि যদিও এই বেগে উৎক্ষিপ্ত হইলে, ক্ষিপ্ত বৰ