পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (কায়স্থ কাণ্ড, প্রথমাংশ, রাজন্য কাণ্ড).djvu/১২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

*ब्र-ब्रांबदश्नं । ] রাজন্ত্য-কণগু to సి' তাহার পার্শ্বে বিজয়কান্দি ও যশোহর গ্রাম এবং ২॥• ক্রোশ দক্ষিণপূৰ্ব্বে ‘জয়সাগর’ রছিয়াছে। উক্ত গ্রামসমূহ হইতে আমরা প্রসিদ্ধ পালবংশীয় দেবপাল, জয়পাল ও রামপালের নাম পাইতেছি। রামপালচরিতের উপসংহারে কবি সন্ধ্যাকরনী নিজ বাসস্থানের পরিচয় প্রসঙ্গে লিখিয়াছেফ্লু “বহুধাশিরোবরেন্দ্রীমণ্ডলচূড়ামণিকুলস্থানং। শ্ৰীপৌণ্ডবৰ্দ্ধনপুরপ্রতিবন্ধঃ পুণ্যভূঃ বৃহদ্বটুঃ।” অর্থাৎ পৃথিবীর শীর্ষস্থান বরেন্দ্রীমওল,তাহার চূড়ামণিরূপ কুলস্থানই পুণ্যভূমি বৃহত্ত্বই(এই স্থান ) স্ত্রপৌণ্ডবৰ্ধনপুরে সংবদ্ধ। বটু শবের অপভ্রংশে বড়, বা বড়া। এইরূপে বৃহদ্বটুর অপভ্রংশে বড়বড়য়া ও বড়বড়িয়া হওয়া সম্ভবপর। উপরে যে ‘বড়বড়িয়া গ্রমের উল্লেখ করিলাম, তাহার নিকট হইতে • ক্রোশের মধ্যে বহুতর পুরাতন ধ্বংসাবশেষের নিদর্শন রহিয়াছে। পালরাজগণের স্মৃতি, পৌণ্ডেব অপভ্রংশে ‘পুগুরিয়া’ নাম ও বিশাল ধ্বংসাবশেষ হইতে অনায়াসেই মনে হইবে যে, এক সময়ে এখানে পালরাজগণের রাজধানী পৌঁওবৰ্দ্ধনপুর’ অবস্থিত ছিল । বড়বড়িয়ার পাশ্ববৰ্ত্তা ‘বিজয়কান্দি’ ও ‘যশোহর’ গ্রাম হইতে মনে হয় যে, এখানে সেনরাজ বিজয়সেন ল ছাউনী করিয়া ছিলেন এবং যেখানে তাহার সহিত যুদ্ধে রামপালের যশ অপহৃত হয়, ৈ র “যশোহর’ নামে পরিচিত হইয়াছে। সম্ভবতঃ রামপাল এখানে পরাজিত হইয়া রাজধানী ন করেন। গঙ্গা-করতোয়সঙ্গমে র্তাঙ্গর নূতন রাজধানী ‘শ্রীরামাবতী’ প্রতিষ্ঠিত হইয়াছিল।" কিন্তু বৃক্তত্বটুর সন্নিহিত পৌণ্ডবৰ্দ্ধনপুর ও জয়ন্তের রাজধানী পৌণ্ডবৰ্ধন অভিন্ন বলিয়া গ্রহণ করিতে সন্দেহ আছে। কেহ কেহ মনে করেন গৌড় বা পৌণ্ডের রাজধানীর প্রকত নাম বৰ্দ্ধনপুর, পৌংের রাজধানীবলিয়া পৌণ্ডবৰ্দ্ধনপুর বলা হইত। বৰ্দ্ধনপুরষ্ট পরে বন্ধনকট ও অধুনা রাজবাড়ী নামে প্রসিদ্ধ হষ্টয়াছে। পূৰ্ব্বোক্ত পুগুরিয়া গ্রাম হইতে ১৩ ক্রোশ উত্তরপূর্বে বৰ্দ্ধনকুটা অবস্থিত। ইহারই নিকট মদনতৈর, গোবিন্দগঞ্জ এবং মদনতৈরের ৬ মাইল দক্ষিণ পূৰ্ব্বে গড়ফতেপুরের পাখে কুমারপালা গ্রামগুলি কুমারপাল, মদনপাল, গোবিন্দপাল প্রভৃতি পরবর্তী পালনরপতিগণের স্মৃতি যেন জাগাইয়। রাখিয়াছে, এরূপ স্থলে উক্ত বৰ্দ্ধনকুটীও এক সময় পেীগুবৰ্দ্ধনপুর নামে শেষপালনৃপতিগণের রাজধানীরূপে গণ্য ছিল বলিয়া মনে করিতে পারি। কিন্তু চীনপরিত্রাজক যে গৌড়রাজধানীতে আসিয়া ছিলেন ও কাশ্মীরপতি জয়াপীড় যে পৌণ্ডবৰ্দ্ধন-নগরে কীৰ্ত্তিকেয়-মন্দিরে . উপস্থিত হইয়াছিলেন, ইহা সেই ‘পৌণ্ডবৰ্দ্ধন বলিয়া মনে হয় না। উক্ত বন্ধনকুট হইতে ১২ মাইল দক্ষিণে ও বগুড়া সহর হইতে ৭ মাইল উত্তরপশ্চিমে মহাস্থানগড় নামে যে সুপ্রাচীন স্থান আছে, চীন-পরিব্রাজক ও রাজতরঙ্গিণীর বর্ণনা-অনুসারে এই স্থানকেই আমরা জয়স্তের রাজধানী পৌঁও বৰ্দ্ধননগরী মনে করি। চীন-পরিব্রাজক এখানে আসিয়া •• দেবমন্দির, ২•ট বৌদ্ধ সঙ্গারাম ৪ তাহাতে তিন হাজারের অধিক শ্রমণ ও বহুসংখ্যক দিগম্বর জৈন দর্শন করিয়া (s*) ब्रवउँ eब जषाitा ‘ब्रांनशीण' थगरत्र 4हे ब्रांबांदउँौ नचरक जांध्णाध्नां महेश ।