পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (কায়স্থ কাণ্ড, প্রথমাংশ, রাজন্য কাণ্ড).djvu/৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

আদি কায়স্থ-সমাজ । ] রাজন্ত্য-কণগু ২১ আছে, বুদ্ধনির্বাশের ২১৮ বর্ষ পরে (৭৪৪–২১৮-৩২৪ খৃঃ পূৰ্ব্বাদে) অশোকের অভু্যদয়।" ব্ৰহ্মাওদি পুরাণমতে চন্দ্রগুপ্ত ২৪ ও বিন্দুসার ২৫ বর্ষ রাজত্ব করেন। এখানে ৩৭২ খৃঃ পূৰ্ব্বাদের ৪৮ বর্ষ পরে ৩২৪ খৃঃ পূৰ্ব্বাদ হইতেছে ; সুতরাং হিন্দু ও জৈন পুরাণের সহিত বৌদ্ধ মহাবংশের বিশেষ অনৈক্য হইতেছে না। বর্তমান প্রত্নতত্ত্ববিদগণ অশোকের ৩৭ বর্ধমাত্র রাজ্যকাল অবধারণ করিয়াছেন। এদিকে তাহার বানপ্রস্থ অবস্থায় স্ববর্ণগিরি হইতে বৃদ্ধ বৌদ্ধরূপে র্তাহার যে অমুশাসনলিপি প্রচারিত হইয়াছে, তাহাতে ২৫৬ অন্ধ দৃষ্ট হয়। এই অঙ্ককে বুদ্ধ-নিৰ্ব্বাণাব্দ ও র্তাহার রাজ্যকালের শেষ বর্ষ ধরিয়া লইলেও তাহার রাজ্যকাল ৩৭ বৰ্ষই হয়।" এখানেও আমরা ২৮৭ খৃঃ পূৰ্ব্বাবে তাহার বিবাস’ বা সংসারত্যাগেরই আভাস পাইতেছি। মহাপুরাণ অনুসারে চন্দ্রগুপ্ত হইতে বৃহস্থ পর্যন্ত ৯ জন মৌর্য্য-নৃপত্তি ১৩৭ বৎসর রাজত্ব করিয়া গিয়াছেন। পূর্বেই বলিয়াছি, ও৭২ খৃঃ পূৰ্ব্বাবে চন্দ্রগুপ্তের অভিষেক হইয়াছিল। তাহার ১৩৭ বর্ষ পরে বা ২৩৫ খৃঃ পূৰ্ব্বাবে মৌর্য্যবংশের অবসান ধরিয়া লইতে হইবে। মৌর্য্যবংশের অধঃপতনের কারণ ব্রাহ্মণ-প্রভাব। মৌর্য্য-সম্রাটু অশোক বুদ্ধবয়সে নিজে একজন গোড়া বৌদ্ধ হইলেও সকল ধৰ্ম্মের প্রতি সমভাবে সন্মান প্রদর্শন করিতেন। তাহার সময় প্রজাদিগের ধৰ্ম্ম সম্বন্ধে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা ছিল। সাধারণ প্রজাবৰ্গ অশোকের ব্যবহারে সন্তুষ্ট থাকিলেও ব্রাহ্মণ্যধর্মের নেতা ব্রাহ্মণগণ কখনও সন্তুষ্ট হইতে পারেন নাই। স্মরণাতীত কাল হইতে যে অবিসৰাতি শ্ৰেষ্ঠত তাহার ভোগ বরিয়া,আসিতেছিলেন, তাহার মূলে কুঠারাঘাত হইল,—সকল জাতি সমান স্বাধীনতা পাইয়াকে আর এখন তাহাদিগকে পূর্কের স্তায় সন্মান ও শ্রদ্ধা করিবে ? তাহারা বুঝিলেন, সমতা-রক্ষার ছলে বৌদ্ধসম্রাটু ব্রাহ্মণ-ধৰ্ম্মের ঘোর শক্রতা-সাধন করিতেছেন। এইরূপ বিশ্বাসে র্তাহাদিগের মনে দারুণ বিদ্বেষের সঞ্চার হইল। অতঃপর যখন মৌর্য্যসম্রাটু দগু-সমতা ও ব্যবহার-সমতা রক্ষার জন্ত বিধি-ব্যবস্থা প্রচার করিতে আরম্ভ করিলেন, তখন সেই বিদ্বেষাগ্নিতে উপযুক্ত অনিল-সঞ্চার হইল। ব্রাহ্মণ্যধর্শের প্রাধান্ত সময়ে অপরাধ সম্বন্ধে ব্রাহ্মণগণের একপ্রকার স্বাতন্ত্র ছিল। ব্রাহ্মণ যত গৰ্হিত, অপরাধই করুন না কেন, তাহাদিগের কখনও প্রাণদও হইত না। তাহাদিগের প্রতি কোন প্রকার শারীরিক শাস্তি বিধান করাও অবৈধ বলিয়া বিবেচিত হইত। শিখা-কৰ্ত্তন কি বিত্তসহ রাজ্য হইতে বন্ধিরণই তাহাদিগের পক্ষে চুড়ান্ত দও ছিল। সাক্ষ্য দিবার জন্ত তাহাদিগকে ধৰ্ম্মাধিকরণে উপস্থিত করাইবার কোনই উপায় ছিল না এবং যদি কখনও তাছার অনুগ্রহ वर्षi९ ब्रिांशङ्ग ७•s बर्ग् श्री ( च९ि s२१ शृः *ीश्च } {{ष जैौहिङ्ग शशींशौङ्गवाभौ निiि१ गांश्च করেন। এরূপ স্থলে ৪২৭—১se অর্থাৎ ৩৭২ খৃঃ পূর্বাদে চত্রগুপ্তের রাজ্যলাভ হইতেছে। (২৭) “জিননিকানতে পচ্ছা পুরে তস্তাভিসে কতো । चौकांक्षिणः शृिणणष्ठ१ १धग्मवद् विशtमिनि ॥“ (भश्र६१ s१ ofद्वि* ) (**) Journal of the Royal Asiatic Society, 1910, p. 1808,